ধূমপান ছাড়তে অবশ্যই মেনে চলতে হবে এই পদ্ধতি, ফল পাবেন ১০০%

679
ফল পাবেন ১০০%/The News বাংলা
ফল পাবেন ১০০%/The News বাংলা

ধূমপান যে স্বাস্থ্যের পক্ষে কতটা খারাপ; তা বলার জন্য সিনেমা হলে দেখানো বিজ্ঞাপনই যথেষ্ট। কিন্তু হাজার চেষ্টা করেও; আমরা ছাড়তে পাড়ি না নিত্যদিনের এই বাজে অভ্যেস। শুধুমাত্র নিজের ক্ষতি তা নয়; সঙ্গে ক্ষতি হচ্ছে আমাদের চারপাশের পরিবেশ আর মানুষজন। কিন্তু সব জেনেও কি আমরা ছাড়তে পারি এই অভ্যেস! কোনও ট্যাবলেট বা প্যাচ নয়; একদম গোরা থেকে ছেঁটে ফেলতে হেবে এই অভ্যেস। আর তার জন্য কি করবেন জেনে নিন।

সব রকম নেশার মধ্যে; সবচেয়ে ক্ষতিকর হল সিগারেটের নেশা। তবে এই নেশা ছাড়াও অসম্ভব নয়। কিছু উপায় অবলম্বন করলে; আস্তে আস্তে এই মরণ কামড় থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। বর্তমানে গবেষকদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে; বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য উঠে এসেছে; যা উপকারী।

তাঁরা বলেছেন; তীব্র মানসিক ইচ্ছে এবং জীবনযাত্রার কিছু পরিবর্তন ঘটালেই একজনের পক্ষে; এই নেশার হাত থেকে মুক্তির পথ কিছুটা সহজ হয়ে যাবে। এছাড়াও সমীক্ষায় জানা গেছে; হঠাৎ করে যারা ধূমপান বন্ধ করার কথা ভাবেন তাদের মধ্যে; মাত্র ৫-৭% মানুষ এভাবে ছাড়তে পেড়েছেন।

আরও পড়ুনঃ গাঁজা খেলে বৃদ্ধি পায় যৌন ক্ষমতা, এমনটাই বলছে সমীক্ষা

তাঁরা জানিয়েছেন; থেরাপি ছাড়াও আছে অন্যপথ। প্রথমে নিজেকেই খুঁজে বেড় করতে হবে ঠিক কোন সময়ে; সিগারেটের প্রতি আসক্তি জন্মাচ্ছে। অনেক সময় তীব্র মানসিক অবসাদ; কাজের চাপ; এবং নানান ধরনের চাপ কাটিয়ে উঠতেই বিভিন্ন নেশার পথ ধরেন।

একবার মূল খুঁজে বেড় করতে পারলেই কেল্লা ফতে! খুব মন দিয়ে তা বিশ্লেষণ করে; মনের জোরে নিজের সমস্যাগুলোকে কাটিয়ে উঠছে হবে। এর জন্য প্রতিদিন নিয়ম মেনে ধ্যান; খুব সাধারণ যোগ আসন করে দেখতে পারেন; কাজ ভালো হবে। মনে রাখবেন; মন ঠিক থাকলেই সব ঠিক।

এছাড়াও ব্যাবহারিক থেরাপির মাধ্যমে; কাউনসিলিং-এর মাধ্যম হতে পারে; হতে পারে নিকোটিন রিপ্লেসমেণ্ট থেরাপি। সিগারেটের বদলে গাম; লজেন্স ইত্যাদি ব্যাবহার করা যেতে পারেন। এছাড়া বাজারে বিভিন্ন রকম ওষুধ পাওয়া যায় যার নিয়মিত সেবনে ধূমপানে আসে অরুচি।

এত গেলো পদ্ধতি কিন্তু অনেকেই শুরু করে টিকে থাকতে পারেন না তারা কীভাবে টিকে থাকবেন তারও কিছু পদ্ধতি আছে-
নিজের দুর্বলতা অর্থাৎ ট্রিগার সম্পর্কে জানতে হবে; কি আপনাকে সিগারেটের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে সেটা থেকে দূরে থাকুন। নিজের আকাঙ্ক্ষার কাছে পরাজিত না হয়ে দুর্বলতা কে এড়িয়ে চলতে হবে। প্রথমে একটু কষ্ট হলেও আস্তে আস্তে আপনি মারণ নেশা থেকে বেড়িয়ে এসে সুন্দর জীবন যাপন করতে পাড়বেন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন