‘হিন্দুস্তান কখনও পাকিস্তান হবে না’, ভবানীপুরে বিজেপিকে জবাব মমতার

1681
'হিন্দুস্তান কখনও পাকিস্তান হবে না', ভবানীপুরে বিজেপিকে জবাব মমতার
'হিন্দুস্তান কখনও পাকিস্তান হবে না', ভবানীপুরে বিজেপিকে জবাব মমতার

বৃহস্পতিবার ভবানীপুরে নির্বাচনী প্রচারে; চেনা ঝড় তুললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। আর মাত্র কয়েকদিন বাদেই; ভবানীপুর বিধানসভা উপনির্বাচন। আর সেই কারণেই, ভবানীপুরবাসীর ঘরে ঘরে গিয়ে; জনসংযোগ করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। মসজিদ, গুরুদ্বার, মন্দিরে ঘুরে ঘুরে; কথা বলছেন স্থানীয় মানুষদের সঙ্গে। সব জাতি ধর্ম ও বর্ণের সহাবস্থানের স্পিরিট আছে এই বাংলায়; এমনটাই বার্তা দিয়েছেন তিনি সাধারণের জন্য। বৃহস্পতিবার বিজেপিকে আক্রমণ করে মমতা বলেন; “নন্দীগ্রামকে পাকিস্তান বলেছিল; ভবানীপুরকেও পাকিস্তান বলছে। এটা আমার দেশ; আমার মাতৃভূমি। আমি আমার দেশ; মাতৃভূমিকে সবচেয়ে বেশি ভালোবাসি। বাংলাই হিন্দুস্তানকে রক্ষা করবে; হিন্দুস্তান কখনও পাকিস্তান হবে না”।

আরও পড়ুনঃ ‘অজানা জ্বরে কারও মৃত্যু হয়নি, আমি এনকোয়ারি করেছি, ওটা এমনি জ্বর’, শিশুদের ভাইরাল জ্বর নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী

কয়েকদিন আগে প্রচারে বেড়িয়ে; ভবানীপুরের ষোল আনা মসজিদে গিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপির আইটি সেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা; তথা রাজ্য বিজেপি পার্টির কো–অর্ডিনেটর অমিত মালব্য; ভবানীপুর মসজিদে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের যাওয়া নিয়ে কটাক্ষ করেছিলেন।

আরও পড়ুনঃ ভবানীপুরে মুখ্যমন্ত্রী মমতার বিরুদ্ধে ভোট যুদ্ধে, সংখ্যালঘু প্রার্থী সাহিনা

জনসংযোগ কর্মসূচীতে মমতা বন্দোপাধ্যায় বলেন; “আমি চাই আমাদের রাজ্যে গুজরাটি, মাড়োয়ারি, পাঞ্জাবি; সবাই একসাথে থাকুক। এটা আমার জন্মভূমি, কর্মভূমি; আমার মাতৃভূমি”। মমতা এদিন বলেন, “আমি মসজিদে গিয়েছিলাম বলে; আমাকে কটাক্ষ করছে বিজেপি। আমি মন্দিরেও গিয়েছি; গুরুদ্বারেও গিয়েছিলাম। বিজেপির এই ধরনের আচরণ; আমি পছন্দ করি না”।

আরও পড়ুনঃ ‘সিঙ্গেল মাদার’ লড়াই শেষ, বার্থ সার্টিফিকেটে বাচ্চার বাবার নাম জানালেন নুসরত

ভবানীপুরকে নিজের হাতের তালুর মতোই; চেনেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি ভালই জানেন, ভবানীপুরে সব ধর্মের, বর্ণের ও জাতির মানুষ; বহু দশক ধরে সহাবস্থান করছে। এই কারণে অনেকেই ভবানীপুরকে; ‘মিনি ইন্ডিয়া’ বলে থাকেন। বৃহস্পতিবারের প্রচারে সেই ঐক্যের শক্তিকেই; ধরতে চাইলেন মমতা। মুখ্যমন্ত্রীর এই বার্তা একদিকে যেমন সম্প্রীতির, ও ভবানীপুর বিধানসভা নির্বাচনের দিকে তাকিয়ে; তেমনই ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের নিরিখে বলেও; মনে করছে বাংলার রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন