পিএম কেয়ার্সের টাকায় বাংলায় তৈরি হবে, ২৫০ শয্যার ২টি করোনা হাসপাতাল

1280
পিএম কেয়ার্সের টাকায় বাংলায় তৈরি হবে ২৫০ শয্যার ২টি করোনা হাসপাতাল
পিএম কেয়ার্সের টাকায় বাংলায় তৈরি হবে ২৫০ শয্যার ২টি করোনা হাসপাতাল

পিএম কেয়ার্সের টাকায়, বাংলায় তৈরি হবে; ২৫০ শয্যার ২টি করোনা হাসপাতাল। রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায়; এবার পিএম কেয়ার্স ফান্ডের টাকায় বাংলায় তৈরি হচ্ছে ২টি কোভিড হাসপাতাল। মুর্শিদাবাদের বহরমপুর ও নদিয়ার কল্যাণীতে; হাসপাতাল দুটি তৈরি করবে ডিআরডিও (DRDO)। ২৫০ শয্যার হাসপাতাল দুটি তৈরির জন্য; ইতিমধ্যেই কেন্দ্রের তরফে অর্থ বরাদ্দ হয়েছে; বলে জানানো হয়েছে পিএম কেয়ার্সের তরফে। রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিকাঠামো আরও মজবুত করতে; কেন্দ্রের এই উদ্যোগ বলেও জানানো হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার; বারবার এই ফান্ড নিয়ে অভিযোগ করেছে।

বাংলায় এই দুটি হাসপাতাল নির্মাণের উদ্যোগ নিয়ে; কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরীর কথা রাখলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রধানমন্ত্রী মোদীর বাসভবনে গিয়ে, তাঁর সঙ্গে একান্ত সাক্ষাতে অধীর চৌধুরী জানিয়েছিলেন; বহরমপুরে ৫০০ বেডের করোনা হাসপাতাল; তৈরি করানো হোক ‘ডিআরডিও’কে দিয়ে। অধীর চৌধুরীর আবেদনে সাড়া দিয়ে প্রধানমন্ত্রী মোদী; ৫০০ নয়, ১০০০ বেডের করোনা হাসপাতাল তৈরি করার জন্য; অর্থ বরাদ্ধ করলেন বহরমপুরে।

আরও পড়ুনঃ কয়লা পাচার রুখতে কয়লামন্ত্রীর কাছে রাজ্যপাল, তৃণমূল রাগছে কেন

যদিও অধীরবাবু দাবি করেছেন, পর্যাপ্ত জায়গায় ব্যবস্থা না হওয়ায়; আপাতত ২৫০ শয্যার হাসপাতাল তৈরি হবে সেখানে। ডিআরডিও গ্রুপ ক্যাপ্টেনের নেতৃত্বে; পরবর্তীতে একটি প্রতিনিধি দল পৌঁছায় বহরমপুরে। সেখানকার প্রশাসন জানায়, ১০০০ বেডের হাসপাতাল; তৈরি করার মত জায়গা সেখানে নেই। ২৫০ বেডের হাসপাতাল; তৈরি করা যেতে পারে। এরপরেই ডিআরডিও সিদ্ধান্ত নেয়; ২৫০ বেডের হাসপাতাল তৈরি করা হবে বহরমপুরে। এবং একটি ২৫০ বেডের হাসপাতাল; তৈরি করা হবে কল্যাণীতে।

আরও পড়ুনঃ ধনখড় জমানা কি শেষ, বাংলার নতুন রাজ্যপাল কে হতে পারেন

সিদ্ধান্ত মাফিক কাজও; শুরু করে দিয়েছে ডিআরডিও। যার ফলে এলাকার অসংখ্য মানুষ; পরিষেবা পাবেন বলেই মনে করা হচ্ছে। এর ফলে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের যে অভিযোগ ছিল, পিএম কেয়ারস নিয়ে; তাও আপাতত বন্ধ হবে বলেই মনে করছে মোদী সরকার ও বাংলার বিজেপি নেতারা। তবে পিএম কেয়ারসের টাকার হিসাব কেন নেই; এই প্রশ্ন এখনও করেই যাচ্ছে তৃণমূল নেতারা।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন