ছোট্ট শিশুর অসাধারণ কাণ্ডে মুগ্ধ ও অবাক গোটা দেশ

461
মিজোরামের ডেরেক সি লালছানহিমাকে সংবর্ধনা দেওয়া হল স্কুলের তরফ থেকে/The News বাংলা
মিজোরামের ডেরেক সি লালছানহিমাকে সংবর্ধনা দেওয়া হল স্কুলের তরফ থেকে/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

ছোট্ট শিশুর অসাধারণ কাণ্ডে মুগ্ধ ও অবাক গোটা দেশ। গতকাল সকাল থেকে ফেসবুকে ভাইরাল হয় মিজোরামের এক শিশুর ছবি। এক হাতে ছোট্ট মুরগির ছানা আর অপর হাতে দশ টাকার নোট নিয়ে করুণ মুখে দাঁড়িয়ে আছে সে। মিজোরামের ডেরেক সি লালছানহিমাকে সংবর্ধনা দেওয়া হল স্কুলের তরফ থেকে। কিন্তু হয়েছিল কি?

আরও পড়ুনঃ অভিষেকের স্ত্রী রুজিরাকে শুল্ক দফতরের সামনে হাজিরার নির্দেশ হাইকোর্টের

মিজোরামের ৬ বছর বয়সী সাইরাঙ্গের বাসিন্দা মিজোরামের সাইকেল চালাতে গিয়ে একটি মুরগির বাচ্চাকে ধাক্কা মারে ডেরেক। মুরগির বাচ্চাটি আহত হয়ে পড়লে অনুতপ্ত ডেরেক সঙ্গে সঙ্গে বাচ্চাটিকে হাতে তুলে ছোটে হাসপাতালে।

আরও পড়ুনঃ নতুন ফিচার নিয়ে নিয়ে আসছে হোয়াটসঅ্যাপ

পকেটে ১০ টাকা নিয়ে হাসপাতালের সকলকে সে কাতর আর্তি জানায় মুরগির বাচ্চাকে সুস্থ করে দেবার জন্য। কিন্তু কেউ তার কথা শোনেই না। বাচ্চা বলে পাত্তাই দেয় না কেউ।

আরও পড়ুনঃ ১৫ বছর পূর্ণ করল জিমেল, আজও কোটি মানুষের ভরসা

বাচ্চাটির কাতর আর্তি দেখে, মোবাইল বন্দি করে পুরো ঘটনাটি অনলাইনে শেয়ার করেন সাঙ্গা নামের এক ব্যক্তি। তিনি বলেন “ও বুঝতে পারছিল না যে মুরগির বাচ্চাটা ততক্ষণে মারা গেছে, ডেরেক তার বাবা মা কে বারবার জোর করেছিল হাসপাতালে বাচ্চাটিকে নিয়ে যেতে। ডেরেকের বাবা রাজি না হওয়ায় ছোট্ট ডেরেক নিজেই বাচ্চাটিকে নিয়ে হাসপাতালে চলে আসে নিজের জমানো ১০ টাকা নিয়ে”।

আরও পড়ুনঃ মোদী কি করে প্রধানমন্ত্রী হল ভগবান জানে, মাথাভাঙায় বিস্ফোরক মমতা

পরে হাসপাতাল থেকে কাঁদতে কাঁদতে ডেরেক বাড়ি ফিরে আবার ১০০ টাকা নিয়ে হাসপাতালে হাজির হয়। অবশেষে ডেরেকের বাবা মা তাকে বোঝান যে মুরগির বাচ্চাটা আর বেঁচে নেই।

আরও পড়ুনঃ ভোটের মুখে তৃণমূল সভাপতির বাড়ি থেকে উদ্ধার অস্ত্র ও কোটি কোটি টাকা

ছোট্ট ডেরেকের নিরীহ অসহায় অথচ মানবিক মুখ দেখে হাসপাতালের একজন নার্স তার ছবি তোলেন, এবং সেই ছবিই কাল থেকে সোশ্যাল মিডিয়ার ভাইরাল হয়।

আরও পড়ুনঃ অ্যান্টি স্যাটেলাইট টেস্ট নিয়ে নাসার অভিযোগ উড়িয়ে দিল ভারত

ডেরেকের এমন সংবেদনশীলতা পৃথিবী জুড়ে বহু মানুষের হৃদয় জয় করেছে। বহু মানুষের আশীর্বাদ পেয়েছে ডেরেক। ছেলের এমন নরম মনের পরিচয় পেয়ে তার বাবা পুলিশ কর্মী ধীরজ ছেত্রী অত্যন্ত অবাক। তিনি চান তাঁর ছেলের এই স্পর্শকাতর মন বজায় থাকুক।

আরও পড়ুনঃ সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ না মেনে বিমল গুরুং কে গ্রেফতার করতে পারেন মমতা

শুধু ডেরেকের বাবা মা-ই নয়, ডেরেক কে নিয়ে গর্বিত তার স্কুলও। গতকাল ডেরেকের মানবিকতার পরিচয় পেয়ে আজ স্কুলের তরফ থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হয় ডেরেককে। একটি শিশুর মানবিকতা ও সংবেদনশীলতা সকল উদাহরণ এর উর্ধে দাঁড়িয়ে মন জয় করেছে মানুষের। সব মানুষ কেন এরকম হয় না?

আরও পড়ুনঃ এক্সপায়ারি বাবুকে চ্যালেঞ্জ স্পিডব্রেকারের, বাংলায় মোদী মমতা তরজা তুঙ্গে

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন