হাসপাতালের বিভাগীয় প্রধানের বর্ণবিদ্বেষের শিকার হয়ে প্রতিভাবান ডাক্তারের আত্মহত্যা

229
বিভাগীয় প্রধানের বর্ণবিদ্বেষ এর শিকার ডাক্তার ওঙ্কারের আত্মহত্যা/The News বাংলা
বিভাগীয় প্রধানের বর্ণবিদ্বেষ এর শিকার ডাক্তার ওঙ্কারের আত্মহত্যা/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

মৃত্যুর চারদিন বাদে হরিয়ানার রোহতক মেডিক্যাল কলেজের ৩০ বছর বয়স্ক ডাক্তার গবেষক ওঙ্কারের মৃত্যু নিয়ে মুখ খুললেন তাঁর পরিবারের লোকজন। তাঁদের অভিযোগ ওঙ্কারের বিভাগীয় প্রধান ডাক্তার গীতা গাথওয়ালার বিরুদ্ধে।

ওঙ্কারের বাবা মাণিক বরিদাবাদ জানান; ওঙ্কার বোনের বিয়ের জন্য ছুটির আবেদন করেছিলেন; কিন্তু গীতা গাথওয়ালার তাঁর ছুটি নামঞ্জুর করেন; তারপরেই নিজের হোস্টেলের ঘরে আত্মহত্যা করেন ওঙ্কার।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মুখোমুখি হবেন না মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

পরিবারের দাবি; গত দেড় বছর ধরে ওঙ্কারের উপর নানান ভাবে মানসিক নির্যাতন করে চলেছিলেন শিশুবিভাগের প্রধান ডাক্তা গীতা গাথওয়ালা; ১২ জুন বোনের বিয়ের জন্য ছুটির আবেদন নামঞ্জুর হবার পরেই; বোনের বিয়ের জন্য কেনা; স্যুট পরে আত্মহত্যা করলেন ওঙ্কার।

এর আগেও বহুবার ওঙ্কারের পিএইচডি থিসিস বাতিল করেছিলেন গীতা গাথওয়ালা। থিসিস জমা দেওয়ার শেষ দিনে বিভাগীয় প্রধানের সই এর জন্য অনুরোধ করাতে গীতা গাথওয়ালা তাঁকে বিদ্রুপ করেন ছোটো জাত; এবং কোটায় চান্স পাওয়া নিয়ে। এধরণের ব্যাঙ্গ বিদ্রুপ অনেকদিন ধরেই চলছিল বলে পরিবারের দাবি।

পাকিস্তানি নারীরা বিয়েতে বিক্রি হচ্ছে চীনে, সহ্য করছে ধর্ষণ

দুবছর আগে ওই হাসপাতালে এক শিশুমৃত্যুর দায় ওঙ্কারের ওপর পরে; এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এফআইআর হয়েছিল ওঙ্কারের বিরুদ্ধে। পরে বিষয়টি জানাজানি হওয়ায় ছাত্রছাত্রীদের একাংশ প্রধানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভও দেখিয়েছিল। তারপর থেকে চাপ অনেকটাই বেড়ে যায় ওঙ্কারের ওপর।

বর্ণবিদ্বেষ এর শিকার ডাক্তার পায়েল তড়ভি প্রসঙ্গে সোশাল মিডিয়ায় বিভিন্ন লেখাপত্র ও খবর শেয়ার করেছিলেন ওঙ্কার। পায়েল তড়ভি ২৬ বছর বয়সের তরুণী যিনি ডাক্তারি পাস করে মুম্বায়ের হাসপাতালের রেসিডেন্ট ডাক্তার হিসেবে কাজ করছিলেন। পায়েল নিজের হস্টেলে বাকী তিনজন রুমমেটের সংঘবদ্ধ বিদ্বেষের শিকার হন।

ডাক্তার ওঙ্কারের বাবা মাণিক বরিদাবাদ ছেলের মৃত্যুর জন্য বিভাগীয় প্রধানের বিরুদ্ধে কড়া শাস্তির দাবি করেন। এদিকে বিভাগীয় প্রধান জানান ওঙ্কার মানসিক অবসাদের শিকার ছিলেন; হাসপাতালে এক শিশু মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ওঙ্কারের বিরুদ্ধে এফআইআর হয়েছিল; এর ফলেই ওঙ্কার আত্মহত্যা করেন।

হসপিটালের পক্ষ থেকে জানানো হয়; রোহতক মেডিক্যাল কলেজের শিশু বিভাগের নাম রাখা হবে ডাক্তার ওঙ্কারের নামে; এছাড়া ওঙ্কারের পরিবারের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন হসপিটালের সিনিয়র থেকে জুনিয়ার ডাক্তারদের সকলেই।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন