ইস্কন রাজনৈতিক নিরপেক্ষ সংস্থা, নাম জড়িয়ে প্রচার উদ্দেশ্যমূলক, বিবৃতি ইস্কনের

402
ইস্কন রাজনৈতিক নিরপেক্ষ সংস্থা, নাম জড়িয়ে প্রচার উদ্দেশ্যমূলক, বিবৃতি ইস্কনের/The News বাংলা
ইস্কন রাজনৈতিক নিরপেক্ষ সংস্থা, নাম জড়িয়ে প্রচার উদ্দেশ্যমূলক, বিবৃতি ইস্কনের/The News বাংলা

ইস্কন রাজনৈতিক নিরপেক্ষ সংস্থা, মন্দিরের নাম জড়িয়ে প্রচার উদ্দেশ্যমূলক, বিবৃতি ইস্কনের। ইস্কনের ন্যাশান্যাল ডাইরেক্টর অফ কমিউনিকেশন যুধিষ্ঠির গোবিন্দ দাস জানিয়েছেন, যে সব মিডিয়া এই ধরণের ভুল প্রচার করছে, তাদের সঠিক খবর প্রচার করা উচিত।

আন্তর্জাতিক কৃষ্ণ ভাবনামৃত সংঘ বা ইস্কন মন্দির কর্তৃপক্ষকে জমি দেওয়া থেকে শুধু করে ঋন মকুব ও অন্যান্য বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা পাইয়ে দিয়েছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস, আর তাই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে ইস্কন ভক্ত ও অনুগামীদের তৃণমূল কংগ্রেসে ভোট দেওয়ার আর্জি জানিয়েছে ইস্কন। এমনই একটি ভিডিও ভাইরাল হয় গত দুদিন ধরে। অবশেষে শনিবার বিকেলেই মিডিয়ায় লিখিত বিবৃতিতে ইস্কন কর্তৃপক্ষ এই দাবি নস্যাৎ করে দেয়।

আরও পড়ুনঃ কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে মমতা ও রাজনাথের স্বরাষ্ট্র দফতরের চরম সংঘাত

লিখিত বিবৃতিতে ইস্কনের ন্যাশনাল ডিরেক্টর যুধিষ্ঠির গোবিন্দ দাস জানান, সম্প্রতি স্যোসাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে ইস্কন অনুগামীদের একটি বিশেষ রাজনৈতিক দলকে সমর্থন করতে বলা হচ্ছে, যা সম্পূর্ণভাবে মিডিয়ার উদ্দেশ্যমূলক প্রচার। ভিডিওতে যা বলা হচ্ছে, তার সাথে ইস্কন কর্তৃপক্ষের কোনও যোগাযোগ নেই বলে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে। ইস্কন সম্পূর্ণভাবে রাজনৈতিক নিরপেক্ষ সংস্থা। এবং এই সংস্থা কখনোই কোনো বিশেষ ব্যক্তি বা রাজনৈতিক দলের প্রতি পক্ষপাতদুষ্ট নয়, বলে পরিষ্কার উল্লেখ করা হয় লিখিত বিবৃতিতে।

আরও পড়ুনঃ ২৩ মে নয়, ভোটের ফল পিছতে পারে আরও ৬ দিন জানাল নির্বাচন কমিশন

দুদিন ধরে ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, ৭৫০ একর জমির ওপর নির্মীয়মান মায়াপুরে ইস্কনের সবচেয়ে বড় মন্দির নির্মাণের কাজে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে কৃতিত্ব দেওয়া হচ্ছে এবং নাম না করেই তাঁর দলকেই পুনরায় নির্বাচিত করার অনুরোধ করছে ইস্কন। যদিও সমস্ত বক্তব্যই ভিডিওর ব্যাকগ্রাউন্ডে বলা হয়েছে। কে এই বক্তব্য প্রদান করেছেন, তা ভিডিও থেকে স্পষ্ট নয়।

আরও পড়ুনঃ মদ বিক্রিতে ১০ হাজার কোটি টাকার সর্বকালিন রেকর্ড গড়ল মা মাটি মানুষের সরকার

বাংলার প্রথম সারির কিছু সংবাদমাধ্যমও ভিডিওটি নিয়ে প্রচার শুরু করে, যাতে বলা হয় বিজেপিকে আটকাতে তৃণমূলকে ভোট দেওয়ার আর্জি জানিয়েছে ইস্কন কর্তৃপক্ষ। বিজেপির রামের পাল্টা তৃণমূলের হাতিয়ার কৃষ্ণ বলেও অনেকে মন্তব্য করেন।

আরও পড়ুনঃ ২৩ আসনেই জয় নিশ্চিত, বাংলা দখলের লক্ষ্যে অবিচল অমিত শাহ

বিজেপির বিরুদ্ধে রামমন্দির রাজনীতি করার অভিযোগ বহুদিনের। বিভিন্ন জটিলতায় রামমন্দির তৈরির প্রক্রিয়া এখনও সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে আটকে রয়েছে। সেদিক থেকে রাজ্যের মায়াপুর ইস্কন মন্দিরে জমি দিয়ে নতুন মন্দির তৈরির কাজ ত্বরান্বিত করার কৃতিত্ব রাজ্যের শাসক দলের, এমন দাবি তাদের। কিন্তু ভিডিওটির উৎস কি, তা নিয়ে সন্দিহান অনেকেই।

আরও পড়ুনঃ সেনার খাবারের মান নিয়ে প্রশ্ন তোলা তেজ বাহাদুর বারাণসীতে প্রার্থী মোদীর বিরুদ্ধে

আর এখানেই বিজেপি সহ বিরোধীরা এই ভিডিওটিতে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে প্রচার করা হচ্ছে বলে জানান। উল্লেখ্য, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় মূল লড়াই হচ্ছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস ও কেন্দ্রের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির মধ্যে। এই রাজ্য থেকেও বেশ কিছু আসন দখল করার সম্ভাবনা রয়েছে বিজেপির, সম্প্রতি কিছু সংস্থার জনমত সমীক্ষায় এমনই সম্ভাবনা উঠে এসেছে।

আরও পড়ুনঃ লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় বিপুল উত্থান পদ্মের, ইঙ্গিত সমীক্ষায়

এমনকি নদীয়া জেলাতেও বিজেপির বাড়বাড়ন্ত তৃণমূলের কপালে ভাঁজ ফেলতে পারে বলেই কিছু সমীক্ষার ইঙ্গিত। সেজন্যই ভিডিওটিকে শাসকদলের তরফে হাতিয়ার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ অনেকের। আর এরপরেই তৃণমূলকে সমর্থনের দাবিকে লিখিত বিবৃতি দিয়ে নস্যাৎ করে দিল ইস্কন কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুনঃ পাক জঙ্গিদের সাহায্যকারি দেশের বিশ্বাসঘাতকদের খুঁজতে ৮ সদ্যসের গোয়েন্দা দল

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন