শীঘ্রই আসছি ইনশাল্লাহ, বাংলায় পোস্টার ভয়ঙ্কর ইসলামিক স্টেটের

1462
শীঘ্রই আসছি ইনশাল্লাহ, বাংলায় পোস্টার ভয়ঙ্কর ইসলামিক স্টেটের/The News বাংলা
শীঘ্রই আসছি ইনশাল্লাহ, বাংলায় পোস্টার ভয়ঙ্কর ইসলামিক স্টেটের/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

“শীঘ্রই আসছি ইনশাল্লাহ”, বাংলায় টেলিগ্রাম বার্তা ইসলামিক স্টেটের। আর এর জেরেই জোর সতর্কতা বাংলা সহ গোটা ভারতে। হঠাৎ বাংলায় কেন? উঠছে প্রশ্ন। কাদের সাহায্যে বাংলায় আসছে ভয়ঙ্কর ইসলামিক স্টেট জঙ্গিরা? উঠছে প্রশ্ন। দাবী সত্যি হলে, এদের মদতদাতা কারা? খুঁজে দেখছে দেশের গোয়েন্দা দফতর।

পশ্চিমবঙ্গ অথবা বাংলাদেশে হামলা হবে,এমনই সম্ভাবনাকে উস্কে দিয়ে আইসিসপন্থী একটি চ্যানেল মারফত টেলিগ্রাম বার্তায় বাংলায় লিখে জানিয়েছে ইসলামিক স্টেট জঙ্গি সংগঠন। ইসলামিক স্টেটের একটি টেলিগ্রাম বার্তা প্রকাশ্যে আসে, যেখানে লেখা হয়েছে, “শীঘ্রই আসছি, ইনশাল্লাহ”। আর এরপরেই হইচই পড়েছে বাংলা জুড়ে। তবে কোন বাংলার কথা বলা হয়েছে, সেটাও এখন প্রশ্ন।

আরও পড়ুনঃ বিজেপি রাজ্যে ক্ষমতায় এলে টুপি পরতে দেবে না, বিতর্কিত মন্তব্য ফিরহাদের

ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি এই খবরের বিষয়টি যাচাই করে খবরের সত্যতা প্রকাশ করেছে। টেলিগ্রামে প্রকাশিত পোস্টারে “আল মুরসালাত” নামক একটি গ্রুপের লোগো চিহ্নিত রয়েছে। ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি পোস্টারটিকে অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে নিয়েছে, যেহেতু শ্রীলঙ্কায় সন্ত্রাসবাদী হামলার এক সপ্তাহও এখনও অতিক্রান্ত হয়নি। স্থানীয় ইসলামী জঙ্গি সংগঠন ত্বহিদ জামাতকে হাত করে আইএস হামলা চালিয়েছিল বলে তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে।

প্রতিবেশী রাষ্ট্র বাংলাদেশে ইতিমধ্যেই ইসলামিক স্টেটের শক্তিশালী উপস্থিতি প্রমানিত হয়েছে। ইসলামিক স্টেটের সাথে সরাসরি সম্পর্কযুক্ত এই দলটি বাংলাদেশে জেএমবি বা জামাতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশ নামে পরিচিত, যার কয়েকটি ভারতেও সমানভাবে সক্রিয়। জেএমবি চক্রের হদিস ভারতেও ইতিমধ্যে কয়েকটি জায়গায় পাওয়া গিয়েছে। বাংলাদেশ থেকে প্রশিক্ষিত জঙ্গিরা ভারতে ঢুকে স্লিপার সেলের কাজ করছে।

আরও পড়ুনঃ নুড়ি পাথর ভরা মাটির মিষ্টি খাইয়ে মোদীর দাঁত ভাঙবেন, মন্তব্য মুখ্যমন্ত্রী মমতার

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসেই কলকাতার বাবুঘাট থেকে আরিফুল ইসলাম নামে জেএমবির এক চাঁইকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দারা। ২০১৮ সালে বুদ্ধ গয়া বিষ্ফোরনে ধৃত ব্যক্তির হাত ছিল বলে জানা গিয়েছে। এর আগে নিম্ন আসাম থেকে কয়েকজন সক্রিয় জেএমবি সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। বহুদিন ধরেই আসামে জঙ্গি প্রশিক্ষণ শিবির চালিয়ে যাচ্ছিল তারা।

আরও পড়ুনঃ পাঁচ বছরে একটাও রাম মন্দির করতে পারল না বিজেপি, রানীগঞ্জে বললেন মমতা

এর আগে আমেরিকার গোয়েন্দা এজেন্সি এফবিআই বর্ধমান স্টেশন থেকে ধৃত আইসিস-জেএমবি জঙ্গি মোহাম্মদ মুসিরুদ্দিন বা মুসাকে গ্রেফতার করে জেরা করে। ২০১৪ সালে খাগড়াগড় বিষ্ফোরনে যুক্ত জেএমবি জঙ্গি আমজাদ শেখের সাথে মুসার যোগাযোগ ছিল বলে প্রমান পাওয়া যায়। তামিলনাড়ুর তিরুপুর জেলায় দীর্ঘদিন মুসা গা ঘাটা দিয়েছিল মুসা। দুই বছর আগেই রাজ্যের কিছু জেলায় ইসলামিক স্টেট জঙ্গি সংগঠনের পোস্টার প্রকাশ্যে আসে, যেখানে স্থানীয় যুবকদের এই জঙ্গি সংগঠনে যোগ দিতে উৎসাহিত করা হয়।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন