শিখদের যারা খুন করেছিল তারা এখনও কংগ্রেসেই আছে, কটাক্ষ প্রধানমন্ত্রী মোদীর

19248
যারা শিখদের খুন করেছিল তারা এখনও পর্যন্ত কংগ্রেসেই আছে, কটাক্ষ প্রধানমন্ত্রীর/The News বাংলা
যারা শিখদের খুন করেছিল তারা এখনও পর্যন্ত কংগ্রেসেই আছে, কটাক্ষ প্রধানমন্ত্রীর/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

বুধবার ছিল সপ্তদশ লোকসভা অধিবেশনের অষ্টমদিন। রাষ্ট্রপতির ভাষণের পর; কয়েকদিন ধরে আলোচনা সভা চলছে সংসদে। রাষ্ট্রপতির বক্তৃতার পর; প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জবাবি ভাষণ দেওয়ার সময়; সরাসরি তীর ছুঁড়লেন কংগ্রেসের দিকে।

শিখদের যারা খুন করেছিল তারা এখনও কংগ্রেসেই আছে; লোকসভায় এদিন কটাক্ষ করলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। শিখ নিধনে অভিযুক্ত কংগ্রেস নেতারা; এখনও দলেই আছেন বলে সমালোচনা করেন মোদী। এরপরেই শুরু হয়ে যায়; কংগ্রেস ও বিজেপির মধ্যে জোর বাক বিতণ্ডা।

আরও পড়ুনঃ ইভিএম থেকে ব্যালটে ফিরে পিছবে না ভারত, লোকসভায় প্রধানমন্ত্রী মোদী

মোদীর দাবী; কংগ্রেসের উপর ক্ষোভ থেকেই ২০১৪ সালে জনগন বেছে নেন বিজেপি সরকারকে। কংগ্রেসের উদ্ধত আচারণই; মোদী সরকারকে জয়ী হতে সাহায্য করেছে। জনগন কংগ্রেস সরকারকে শাস্তি দিয়েছে তাঁদের সরকার হিসাবে বেছে নিয়ে। গত পাঁচ বছরের কাজই তাঁদের ফের ক্ষমতায় এনেছে।

প্রথমবারের থেকে আরও বেশি সমর্থন নিয়ে দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসে বিজেপি সরকার। ২০১৯-এ বিজেপি একাই ৩০০-র বেশি আশন পেয়েছে লোকসভা ভোটে। তবে প্রথম পাঁচ বছর খুব সহজ ছিল না বলে জানান নরেন্দ্র মোদী।

আরও পড়ুনঃ অসমে আবার এনআরসি-এর খসড়া থেকে বাদ লক্ষাধিক মানুষ

প্রতি ক্ষেত্রেই বিরোধিতা করা হয়েছিল মোদী সরকারের। রাজ্যসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা না থাকায় পরিস্থিতি অনেক কঠিন হয়েছিল সরকারের জন্য। সরকার বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক কাজ করতে চেয়েও পিছিয়ে পরতে হয়েছিল বিরোধিতার কারনে।

আরও পড়ুনঃ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের কাশ্মীর সফর, সেনা জঙ্গির গুলির লড়াইয়ে নিকেশ দুই জঙ্গি

বিরোধী দলগুলোর সরকার-বিরোধী প্রচারের জন্য মানুষ ভুল খবর পায়। এতে দেশ আরও পিছিয়ে পরে। প্রধানমন্ত্রী কটাক্ষ করে বলেন; “কংগ্রেস চাইছে পুরনো ভারতে ফিরে যেতে”। রাহুল গান্ধীকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করে মোদী বলেন; “এত উপরে আপনারা উঠে গেছেন যে জমি দেখতে পাননা। শিকর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছেন আপনারা”।

বুধবার সংসদে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে উঠে আসে; অপারেশন ব্লু স্টারের কথা। মোদী বলেন; “যারা শিখদের খুন করেছিল; তারা এখনও পর্যন্ত কংগ্রেসেই আছে”। ১৯৮৪ সালের ৪ঠা জুন জঙ্গিবাদী ধর্মীয় নেতাদের অপসরনের জন্য; পাঞ্জাবের স্বর্ণমন্দিরে ইন্দিরা সরকার আক্রমণের নির্দেশ দেন ভারতীয় সেনাকে। এমনকি ইন্দিরা গান্ধীর মৃত্যুর পরও; শিখ নিধনে মত্ত ছিলেন কংগ্রেস নেতারা।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন