তৃণমূল বাম কংগ্রেস প্রচারে, বিজেপি কর্মী সমর্থকরা বলছেন ‘আর কবে’

240
ভোট প্রচারে বাংলায় মোদী, ব্রিগেড থেকেই দেবেন ভোট জেতার মন্ত্র/The News বাংলা
ভোট প্রচারে বাংলায় মোদী, ব্রিগেড থেকেই দেবেন ভোট জেতার মন্ত্র/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

তৃণমূল বাম কংগ্রেস, ৩ দল প্রচারে, বিজেপি কর্মী সমর্থকরা বলছেন ‘আর কবে’। কলকাতা সহ রাজ্যের জেলায় জেলায় এখন এটাই প্রশ্ন, আর কবে? মঙ্গলবারও হল না। বুধবার বিকালে ফের প্রার্থী ঘোষণার আশা বিজেপির তরফ থেকে। তবে এখনও প্রার্থী না পাওয়ায় হতাশা গ্রাস করছে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের।

রাজ্যে এবার চার দলের লড়াই। তৃণমূল, বাম, কংগ্রেস ও বিজেপির মুখোমুখি লড়াই। বাকি তিন দল প্রার্থী ঘোষণা করে প্রচারেও নেমে পড়েছে। ঘরে বসে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা জিজ্ঞাসা করছেন, আর কবে ঘোষণা হবে? কেউ কেউ হতাশ, ভোটের আগে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হবে তো! আর এতেই বাংলায় ২২ আসন জেতার বিজেপির দাবি যে ক্রমশই ফিকে হয়ে আসছে সেটাই বলছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় বিজেপির সম্ভাব্য প্রার্থী তালিকা

মঙ্গলবার প্রথম কয়েক দফায় বিজেপি প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করার কথা ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা হয় নি। আরও একবার পিছিয়ে গেল বিজেপির প্রার্থী তালিকা। মঙ্গলবার দিল্লিতে প্রথম তিন দফার প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করার কথা ছিল গেরুয়া শিবিরের। কিন্তু তা প্রকাশ করতে পারল না তারা। আর এতেই হতাশ রাজ্যের বিজেপি কর্মী সমর্থকরা।

আরও পড়ুনঃ সেন্ট্রাল ফোর্স বছরে এই কয়েকদিন থাকবে, হুমকি মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষের

ভোটের দিন ঘোষণার পরই গত রবিবার ১০ই মার্চ নিজেদের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে দিয়েছে বিজেপির প্রতিপক্ষ রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। জোট ভেঙে নিজেদের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছে বাম কংরেসও। কিন্তু এখনও নিজেদের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করতে পারেনি বিজেপি। আর এতেই বেজায় হতাশ বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। ভোটের আগে অনেকটাই পিছিয়ে পরলেন তারা, এমনটাই মনে করছে বিজেপি কর্মীরা।

আরও পড়ুনঃ বাম কংগ্রেস বিজেপির আপত্তি নেই, কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে কেন মাথাব্যথা শুধু তৃণমূলের

ভোটের দিন ঘোষণার আগে থেকেই বাংলায় বিজেপির প্রার্থী তালিকা নিয়ে শুরু হয়েছে জোর চর্চা। কিন্তু বুধবার সকাল পর্যন্ত প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হল না। তৃণমূল কংগ্রেস অনেক আগেই প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে। এমনকি জোরকদমে প্রচারে নেমে পড়েছেন তৃণমূল প্রার্থীরা। কংগ্রেস-সিপিএমও প্রার্থী ঘোষণা করে দিয়েছে। কিন্তু যে গেরুয়া ব্রিগেডের উত্থানের জল্পনা রাজ্যজুড়ে, তারাই এখনও পর্যন্ত প্রার্থী দিতে পারল না বাংলায়।

আরও পড়ুনঃ বিরোধী মহিলা প্রার্থীদের ‘মাল’ সম্বোধন করে কুরুচিপূর্ণ আক্রমণ ফিরহাদের

আংশিক প্রার্থীতালিকা অর্থাৎ প্রথম তিন দফার আসনগুলির প্রার্থীদের নাম ঘোষণার কথা ছিল মঙ্গলবার। কিন্তু এদিনও পিছিয়ে যায়। দিল্লির রাজনৈতিক সূত্রে জানা যাচ্ছে, প্রার্থী তালিকা নিয়ে রাজ্য বিজেপির নেতাদের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বই এদিন প্রকট হয়েছে। প্রার্থী নিয়ে কোন রাজ্য নেতার সঙ্গে কোন রাজ্য নেতার আর রাজ্য নেতাদের সঙ্গে কেন্দ্রীয় নেতাদের মত একেবারেই মিলছে না বলেই জানা গেছে।

আরও পড়ুনঃ অনুব্রত মন্ডলের বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ নির্বাচন কমিশনের

আবার জানা গেছে, ভোটের আগে অর্জুন সিং, শঙ্কুদেব পণ্ডার মতো নেতাদের দলে যোগ দিয়েই টিকিট পাওয়া নিয়ে শুরু হয়েছে জোর বিতর্ক। কলকাতায় রাজ্যে বিজেপি পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়র কাছেও এনিয়ে উষ্মা প্রকাশ করেছিলেন অনেক রাজ্য নেতা। তাঁরা দাবি করেছিলেন, সারাবছর যাঁরা কাজ করেন, তাঁরা কেন টিকিট পাবেন না।

আরও পড়ুনঃ মিমি নুসরত এর চরিত্র নিয়ে কটাক্ষ বিতর্কে জড়ালেন দিলীপ ঘোষ

সূত্রের খবর, দিল্লিতে শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক পিছিয়ে গিয়ে বুধবার ফের বৈঠক হবে। বুধবার দুপুরে ফের রাজ্য নেতাদের বৈঠকে ডাকা হয়েছে। শোনা যাচ্ছে, বুধবার প্রথম তিন দফার প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হতে পারে বিজেপির তরফ থেকে। বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতাদের দাবি ছিল, বাংলায় এবার ২২ টি আসন জিতবে বিজেপি। সেই দাবিও যে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করতে না পেরে আসতে আসতে ফিকে হচ্ছে এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়ুনঃ বাবুলকে হারাতে ১ কোটি টাকার কাজের টোপ, বিতর্কিত ঘোষণা মেয়রের

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন