ভোটের ৫ দিন আগে প্রকাশ্যে দিনের আলোয় তৃনমুলের অস্ত্র ও বাইক মিছিল বীরভূমে

544
প্রকাশ্য দিনের আলোয় তৃনমুলের অস্ত্র মিছিল বীরভূমে/The News বাংলা
প্রকাশ্য দিনের আলোয় তৃনমুলের অস্ত্র মিছিল বীরভূমে/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

আগামী ২৯ শে এপ্রিল বীরভূম ও বোলপুর লোকসভা কেন্দ্রে রয়েছে ভোট গ্রহণ। আর ঠিক তার ৫ দিন আগেই বুধবার শখানেক তৃণমূল কর্মী সমর্থক এর অস্ত্র হাতে বাইক মিছিলের ছবিতে উত্তপ্ত গোটা জেলা। ভোটের আগে ভোটারদের চমকাতেই এলাকা দাপিয়ে বেড়ালো শাসকদলের কর্মী সমর্থকরা, অভিযোগ বিরোধীদের। সেই বাইক মিছিলেই এক তৃণমূল কর্মী পিস্তল উঁচিয়ে এলাকায় সন্ত্রাস সৃষ্টি করে। অস্ত্র হাতে তৃণমূল কর্মীর ছবি ইতিমধ্যেই ভাইরাল।

ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের সাঁইথিয়া এলাকার হরিসড়া গ্রাম পঞ্চায়েতে। বুধবার সকালে ওই এলাকায় অঞ্চল সভাপতি প্রশান্ত মন্ডলের নেতৃত্বে শখানেক তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে বের হয় বাইক মিছিলটি। সেই মিছিলে এক তৃণমূল কর্মী অস্ত্র তুলে এমন সন্ত্রাসের ঘটনাটি ঘটান বলেই অভিযোগ।

আরও পড়ুনঃ লোকসভা ভোটে অনুব্রতর বীরভূম নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত নিল নির্বাচন কমিশন

তৃণমূল কর্মীর হাতে অস্ত্রের ছবি প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল পরে যায় গোটা রাজ্যে। ঘটনার কথা তৃণমূল অঞ্চল সভাপতি প্রশান্ত মন্ডল প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে ছবি প্রকাশ্যে আসায় তিনি জানান, “কর্মীর হাতে বন্দুক বা পিস্তল ছিল, তবে সেটা আসল নয় খেলনা”। তবে তৃণমূল কর্মীরাই জানিয়েছেন ওটা আসল রিভলভার।

অন্যদিকে ব্লক সভাপতি সাবের আলী জানান, “আজ আমরা পর্যাপ্ত অনুমতি নিয়েই বাইক মিছিলের আয়োজন করেছিলাম। বাইক মিছিল থেকে বন্দুক নিয়ে ভয় দেখানোর বিষয় আমি জানিনা। তবে এমন ঘটনা যদি ঘটে থাকে, তাহলে সেটি আমাদের দলীয় কর্মী কেউ হবে না। তৃণমূলকে বদনাম করার জন্য এমন ঘটনা ঘটানো হয়েছে ইচ্ছাকৃতভাবে”।

আরও পড়ুনঃ সাত দিন পরেও খোঁজ নেই ভোটের নোডাল অফিসার অর্ণব রায়ের, রহস্য আরও জটিল

তবে তৃণমূলের বাইক মিছিলে তাদের কর্মীদের মধ্যে কি করে বাইরের লোক ঢুকবে সেই নিয়ে প্রশ্নের উত্তর দেন নি কোন তৃণমূল নেতাই। বুধবারই বীরভূম ঘুরে দেখেন নির্বাচন কমিশনের বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক। আর এমন দিনেই জেলায় তৃণমূলের এমন সন্ত্রাসের ছবি বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। সব রিপোর্ট জমা পরেছে তাঁর কাছে। তবে মিছিলে কি করে প্রকাশ্যে অস্ত্র দেখান এক তৃণমূল কর্মী, প্রশ্ন উঠছে।

বিষয়টি নিয়ে বীরভূম জেলা বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ বলেন, “ভোটের মাত্র আর দিন কয়েক বাকি তার মধ্যে এইভাবে প্রকাশ্য দিবালোকে তৃণমূল কর্মীরা হাতে বন্দুক নিয়ে গ্রামের পর গ্রাম বাইক মিছিল করছে, তারা মানুষদের মধ্যে ভয় দেখিয়ে বোঝাতে চাইছে যে তৃণমূল কংগ্রেসকে ভোট না দিলে ভোটের পরে এই বন্দুকের গুলি তাদেরকে খেতে হবে”।

অর্ণব উধাও রহস্যে আরও পড়ুনঃ ভোটের দায়িত্বে থাকা অর্ণব রায়ের উধাও হওয়া ফিরিয়ে এনেছে রাজকুমার রায়ের স্মৃতি

আজ এটা প্রকাশ্যে এসেছে, এ ধরনের অস্ত্র মিছিল বীরভূম জেলার বিভিন্ন গ্রামে করে বেড়াচ্ছে তৃণমূলের সন্ত্রাস বাহিনী। আজকের এই অস্ত্র মিছিল নিয়ে আমরা ইতিমধ্যে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানিয়েছি। আমাদের বিশ্বাস নির্বাচন কমিশন এর বিরুদ্ধে সঠিক পদক্ষেপ নেবে।

এই ঘটনার পরেই বীরভূম জেলায় ১০০% বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী দেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেয় নির্বাচন কমিশন। কিন্তু বুধবার যে ছবি ধরা পড়ল প্রকাশ্যে তাতে বীরভূমে ভোট কতটা শান্তিতে হবে সেই নিয়েই এখন প্রশ্ন উঠেছে।

আরও পড়ুনঃ ভোটের মধ্যেই মমতার সিনেমা আটকে দিল নির্বাচন কমিশন

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন