‘দরাজ নিমন্ত্রণে’ মায়ের শ্রাদ্ধে লোক খাওয়াতে ঘুম উধাও বাংলার বিধায়কের

1868
The News বাংলা

The News বাংলা, বসিরহাট: অদ্ভুত সমস্যায় পড়েছেন বসিরহাটের তৃণমূল বিধায়ক দীপেন্দু বিশ্বাস। বৃহস্পতিবার, তাঁর মায়ের শ্রাদ্ধ উপলক্ষে খাওয়া-দাওয়া। আর তাতেই মাথায় আকাশ ভেঙে পড়েছে প্রাক্তন ফুটবলার ও বর্তমান বিধায়কের। কেন?!

বিধায়কের মায়ের নিয়মভঙ্গ এর খাওয়া-দাওয়া বলে কথা! সমস্যা কেন?? এখানেই তো গল্প শুরু। বিধায়ক নিমন্ত্রণ করেছেন প্রায় ৩ হাজার জনকে। সেই মত প্রস্তুতিও নিয়েছেন বিধায়কের লোকেরা। কিন্তু তারপরেই ছন্দপতন!

আরও পড়ুনঃ বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ভারতীয় ক্রিকেটারদের দাবি ‘কলা আর বউ’

বিধায়কের নিমন্ত্রণ কার্ড নকল করে দরাজ মনে সবাইকে নিমন্ত্রণ করে দিয়েছেন আরও একজন! আর এখানেই শুরু হয়েছে চিন্তা। কত মানুষ আসবেন কাল?

Image Source: Google

যাঁর বাড়ির অনুষ্ঠান, সেই দীপেন্দু বিশ্বাস অবশ্য ভেবেচিন্তে হিসাব করেই তালিকা অনুযায়ী কার্ড ছাপিয়েছিলেন। কিন্তু অভিযোগ, তাঁর হয়ে নিমন্ত্রণপত্রের রঙিন ফটোকপি করে অঢেল বিলিয়ে বেরিয়েছেন এক যুবক। অকাতরে, যাকে পেরেছেন তাকেই নেমন্তন্ন করেছেন!

এমনকী, ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপেও সকলকে ডেকে ডেকে বলেছেন, “সবার নেমন্তন্ন, ইচ্ছে মতো পাত পেড়ে খেয়ে এসো”। অদ্ভুত এই কাজে এখন বেজায় সমস্যায় বিধায়ক। কত মানুষ আসবেন কাল!?

আরও পড়ুন: পৃথিবী এগোলেও তান্ত্রিকের কালো জাদু টোনায় ডুবে আছে আফ্রিকা

বসিরহাট দক্ষিণের বিধায়ক দীপেন্দু বিশ্বাসের মা লীলাদেবী মারা গিয়েছেন সম্প্রতি। কাল, ১৫ নভেম্বর বৃহস্পতিবার নিয়মভঙ্গ। সেই উপলক্ষে হাজার তিনেক মানুষকে নিমন্ত্রণ করেছেন বিধায়ক। সেটা বেড়ে এখন কোথায় দাঁড়াবে তাই নিয়েই আশঙ্কায় বিধায়ক।

ট্যাটরার বাসিন্দা উজ্জ্বল বিশ্বাস অযাচিত ভাবে নিজেই বিধায়কের হয়ে নিমন্ত্রণের দায়িত্ব নিজের কাঁধে নিয়ে ফেলেছিলেন। গত কয়েকদিন ধরে যাকে সামনে পেয়েছেন, সবান্ধবে চলে আসতে বলেছেন বিধায়কের বাড়ির অনুষ্ঠানে! জানতে পেরে চিন্তায় পড়েছেন দীপেন্দু বিশ্বাস।

Image Source: Google

বাধ্য হয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন দীপেন্দু। বিধায়কের বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগে শেষ পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়েছে উজ্জ্বলকে। পুলিশ জানতে পেরেছে, এর আগে দীপেন্দুর নামে টাকা তোলার অভিযোগ ছিল উজ্জ্বলের বিরুদ্ধে। তবে লিখিত অভিযোগ হয়নি সে সময়ে।

উজ্জ্বলের দাবি, টাকা তোলার অভিযোগ মিথ্যা। এমনকী, বিধায়কের মায়ের কাজে কাউকে সে নিমন্ত্রণ করেছে বলেও মানতে চায়নি। তবে, হাজার হাজার মানুষ ইতিমধ্যেই তার নিমন্ত্রণ পেয়ে বিধায়কের মায়ের শ্রাদ্ধে আসার জন্য প্রস্তুত।

আরও পড়ুন: নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে একা লড়েছেন ‘দাবাং’ পুলিশ অফিসার

প্রাথমিক তদন্তের পরে পুলিশ মনে করছে, অসাধু উদ্দেশ্যেই এই কাজ করেছে উজ্জ্বল। তিন হাজার নিমন্ত্রিতের কাজে যদি সংখ্যাটা বাড়িয়ে দেওয়া যায়, তা হলে একটা বিশৃঙ্খলা তৈরি হতে পারে। দীপেন্দু বিশ্বাসকে ছোট করতেই এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে মনে করা হয়েছে।

Image Source: Google

গোটা ঘটনায় উজ্জ্বল একাই জড়িত, নাকি আরও কোনও ‘বড় মাথা’ কাজ করছে, তা খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা। এর পিছনে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র আছে কিনা তাও তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।

আরও পড়ুন: রথযাত্রার আগেই ষাঁড়ের তাড়া খেলেন মুকুল রায়

তবে, অভিযুক্ত গ্রেফতার হয়ে শ্রীঘরে গেলেও বেজায় চিন্তায় বিধায়ক। খাবারে টান ধরতে কত আর দেরি লাগবে! দীপেন্দু নিজেও এমনটাই মনে করছেন। আগামীকাল ১৫ নভেম্বর, নিয়মভঙ্গের কাজে অতিথিদের বসিরহাটের নৈহাটিতে বিদ্যুৎ সঙ্ঘের মাঠে আসার কথা বলা হয়েছে।

আর এখানেই চিন্তায় ঘুম উধাও বিধায়কের। থানা-পুলিশ তো হল। গ্রেফতারও হয়েছে অভিযুক্ত। কিন্তু ভুয়ো নিমন্ত্রণপত্র পেয়ে হিসেবের বাইরে অতিথি হাজির হলে কী পরিস্থিতি দাঁড়াবে, তা নিয়ে আশঙ্কায় বিধায়ক ও তাঁর পরিবার। সামাল দেওয়া যাবে তো, চিন্তায় বিধায়কের দলবল। চিন্তায় বসিরহাট পুলিশ। কাল কি হবে?

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন