নির্বাচন কমিশনের নতুন অ্যাপ সি ভিজিল, জনতার অভিযোগে ১০০ মিনিটের মধ্যে ব্যবস্থা

439
নির্বাচন কমিশনের নতুন অ্যাপ সি ভিজিল, জনতার অভিযোগে ১০০ মিনিটের মধ্যে ব্যবস্থা/The News বাংলা
নির্বাচন কমিশনের নতুন অ্যাপ সি ভিজিল, জনতার অভিযোগে ১০০ মিনিটের মধ্যে ব্যবস্থা/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনের নতুন অ্যাপ সি-ভিজিল। মানে? সিটিজেন্স ভিজিল। যার মাধ্যমে আম-আদমি যে কেউ নির্বাচনী বিধিভঙ্গের জন্য নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ জানাতে পারেন। এই অ্যাপের মাধ্যমে যে কোনও কারও করা যে কোনও নির্বাচনী বিধি ভঙ্গের অভিযোগ একশ মিনিটের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে হবে। গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করা যাবে এই সি-ভিজিল অ্যাপ।

আরও পড়ুনঃ বারাণসী থেকে লড়বেন মোদী, গান্ধীনগরে আডবানির পরিবর্তে অমিত শাহ

কিভাবে ব্যবহৃত হবে এই অ্যাপ? ধরা যাক, কোনও সাধারণ মানুষ দেখলেন কোনও জায়গায় নির্বাচনী বিধি ভঙ্গ করেছেন কেউ বা কোনও রাজনৈতিক দল। তিনি তাহলে তাঁর আগে গুগল অ্যাপ থেকে যদি সিভিজিল অ্যাপ ডাউনলোড করে থাকেন, তাহলে সেই নির্দিষ্ট জায়গা থেকে লাইভ ছবি বা ভিডিও তুলে অ্যাপে আপলোড করতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ বিজেপির প্রার্থী তালিকা প্রকাশ, বাংলায় বিজেপি প্রার্থীদের নাম

তার জন্যে তিনি সময় পাবেন ৫ মিনিট। তাঁর আপলোড করা অভিযোগ সরাসরি চলে যাবে ডিস্ট্রিক্ট ইলেকশন অফিসারের কাছে। ডিস্ট্রিক্ট ইলেকশন অফিসার ৫ মিনিট সময় পাবেন সেই অভিযোগটি নির্দিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে পাঠাতে। ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে পৌঁছনোর পরে ম্যাজিস্ট্রেটের সময় শুরু।

আরও পড়ুনঃ বাম কংগ্রেস বিজেপির আপত্তি নেই, কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে কেন মাথাব্যথা শুধু তৃণমূলের

তাঁকে ১৫ মিনিটের মধ্যে যে জায়গা থেকে অভিযোগটি এসেছে সেখানে পৌঁছোতে হবে। তারপর তিনি ৩০ মিনিট সময় পাবেন সমগ্র বিষয়টি তদন্ত করে একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছনোর যে অভি্যোগটি সত্যি না মিথ্যা। ম্যাজিস্ট্রেট তদন্ত রিপোর্ট লিখে ছবি বা ভিডিও তুলে আপলোড করে দেবেন অ্যাপে ওই ৩০ মিনিটের মধ্যে।

আরও পড়ুনঃ বিরোধী মহিলা প্রার্থীদের ‘মাল’ সম্বোধন করে কুরুচিপূর্ণ আক্রমণ ফিরহাদের

তাঁর সেই রিপোর্ট পৌঁছবে অতিরিক্ত নির্বাচন আধিকারিকের কাছে। তিনি এবার সেই রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করে ৫০ মিনিট সময় পাবেন অভিযোগটির সারবত্তা প্রমাণের। এই হল সি-ভিজিল। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, অভিযোগ পাওয়ার পরে দেশের সব জায়গায় ১৫ মিনিটের মধ্যে তদন্তকারীর কি বাস্তবে পৌঁছনো সম্ভব?

আরও পড়ুনঃ বাংলায় নির্বাচন কমিশনের কিছু কর্মীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ বিজেপির

এক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশন কি শহর ছেড়ে দুর্গম অঞ্চলের কথা ভেবেছেন? যদি অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হয়, তাহলে অভিযোগকারীর বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ভেবেছেন কমিশন? যদি যা আপলোড হবে, তা যদি নির্বাচন সংক্রান্ত না হয় তাহলে যিনি আপলোড করছেন তাঁর বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ভেবেছেন কমিশন?

আরও পড়ুনঃ বাবুলকে ‘বাচ্চা ছেলে’ বলে কটাক্ষ করলেন ‘সেন্সেশনাল’ মুনমুন

তদন্তকারী মিথ্যা বা অযৌক্তিক অভিযোগে অযথা হেনস্থা হলে তার জন্যে কি ভেবেছে কমিশন? সব দিক ভেবে সিভিজিল অ্যাপ কাজে লাগানোর কথা ভেবেছে তো নির্বাচন কমিশন? নাকি শুধুই নির্বাচনী চমক? উঠছে প্রশ্ন। তবে আপনারা গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করে নিন নির্বাচন কমিশনের এই নতুন অ্যাপ সি-ভিজিল বা সিটিজেন্স ভিজিল।

আরও পড়ুনঃ ভোটের দিন ঘোষণার পরেই প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে বাংলায় এগিয়ে তৃণমূল

গুগল প্লে স্টোরে গিয়ে ডাউনলোড করে নিন এই নতুন অ্যাপ সি-ভিজিল বা সিটিজেন্স ভিজিল। অভিযোগ থাকলেই ছবি তুলে পাঠিয়ে দিন কমিশনে। ভোট সংক্রান্ত কোন রকম সমস্যা বা কোন নির্বাচনী বিধিভঙ্গের অভিযোগ থাকলে তার ছবি তুলেই পাঠিয়ে দিন কমিশনে। দেখুন ১০০ মিনিটের মধ্যেই ব্যবস্থা নেবে কমিশন।

আরও পড়ুনঃ বাবুলকে হারাতে ১ কোটি টাকার কাজের টোপ, বিতর্কিত ঘোষণা মেয়রের

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন