তৃণমূলের মিমির বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু তোষণের অভিযোগ বিজেপির

355
তৃণমূলের মিমির বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু তোষণের অভিযোগ বিজেপির/The News বাংলা
তৃণমূলের মিমির বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু তোষণের অভিযোগ বিজেপির/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

তৃণমূলের ‘সংখ্যালঘু তোষণের রাজনীতি’ আয়ত্ত করে নিয়েছে যাদবপুরের তৃণমূল প্রার্থী অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী। এমনই অভিযোগ আনল বঙ্গ বিজেপি। আর এই নিয়েই মিমির তীব্র সমালোচনা করেছে বাংলার গেরুয়া শিবির। মুসলিম তোষণ করে বাংলায় আর ভোট পাওয়া যাবে না বলেই জানান হয়েছে পদ্ম শিবিরের তরফ থেকে। বিজেপি সবেতেই ধর্মীয় জিগির খোঁজে পাল্টা সমালোচনা করেছে তৃণমূল।

মিমি সংক্রান্ত আরও খবরঃ রমজানের রোজা পালন করে ভোটারদের পাশে থাকবেন, নির্বাচনী প্রচারে জানালেন মিমি

রমজানে ভোট, কষ্ট হবে সংখ্যালঘু ভাইবোনদের। তাই তাঁদের সঙ্গে রোজা রাখবেন যাদবপুরের তৃণমূল প্রার্থী তথা অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী। নির্বাচনী জনসভায় গিয়ে নিজেই এই ঘোষণা করেছেন তৃণমূলের তারকা প্রার্থী। আর মিমির এই ঘোষণার পরেই ফের সংখ্যালঘু তোষণের অভিযোগ করছে বিজেপি।

মিমি সংক্রান্ত আরও খবরঃ ভারতীর পর এবার মমতাকে নিজের মা বললেন মিমি

এমনিতেই রাজ্যে ভোট প্রচারে বিজেপির অন্যতম হাতিয়ার তৃণমূলের সংখ্যালঘু তোষণ। মিমির এই বক্তব্যের পর সেই প্রচার আরও জোরদার করেছে বাংলার গেরুয়া শিবির। যাদবপুরের বিজেপি প্রার্থী অনুপম হাজরার প্রচারের অন্যতম হাতিয়ার হয়ে উঠেছে প্রচারসভায় মিমির এই বক্তব্য।

মিমি সংক্রান্ত আরও খবরঃ হুমকি দিয়ে ভোট চাইবার ভিডিও প্রকাশ্যে, মিমির হয়ে শাসানি পঞ্চায়েত প্রধানের

ভোট ঘোষণার পর থেকেই ভোটের দিনক্ষণ নিয়ে আপত্তি জানিয়ে আসছে তৃণমূল। রমজান মাসের মাঝে ভোট করানোর সিদ্ধান্তকে প্রশ্নের মুখে দাঁড় করিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “সংখ্যালঘু ভোটারদের অসুবিধার কথা মাথায় রেখে কমিশনের উচিত ছিল, রমজান মাসে ভোট না করানো। একই কথা বলেন কলকাতার মেয়র তথা রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমও। তিনি বলেন, “ইচ্ছে করে সংখ্যালঘুদের যাতে অসুবিধা হয়, তা সুনিশ্চিত করতেই রমজান মাসের মধ্যে ভোট করানো হচ্ছে”।

আরও পড়ুনঃ ভোট প্রচারে হেলিকপ্টার পাচ্ছেন না মমতা, অভিযোগের তীর কেন্দ্রের দিকে

ভোট ঘোষণার পরই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল, রমজান মাসে ভোটের এই সিদ্ধান্তকে বিজেপির বিরুদ্ধে রাজনৈতিক ইস্যু তৈরি করতে চলেছে তৃণমূল। আর বারবার সেই পথেই হেঁটেছেন তৃণমূল নেতারা। এবার দলের সেই লাইনেই হাঁটার চেষ্টা করলেন যাদবপুরের প্রার্থী অভিনেত্রী মিমি, এমনটাই অভিযোগ পদ্ম শিবির থেকে।

আরও পড়ুনঃ বিবেক দুবেকে তৃণমূলের এজেন্ট বলে কটাক্ষ মুকুল রায়ের

দলের সেই রাজনৈতিক লাইন মেনে সংখ্যালঘু অধ্যুষিত বারুইপুরের কোয়াতলায় গিয়ে রমজানে রোজা রাখার কথা ঘোষণা করলেন মিমি। কোয়াতলায় সংখ্যালঘুদের একটি অনুষ্ঠানে তারকা প্রার্থী বলেন, “আগামী ১৯ মে ভোটের দিন। ওইদিন রমজানের উপোসও চলবে। আপনাদের কথা দিচ্ছি, ওইদিন আমিও উপোস করব। বিকেলে আপনাদের সঙ্গেই রোজা ভাঙব”। মিমির এই প্রতিশ্রুতির পরই হাততালিতে ফেটে পড়ে গোটা সভাস্থল।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় ৭ পর্বের ভোটে ঝড় তুলতে ১০ দিন জনসভা করবেন মোদী

প্রার্থী হিসেবে নাম ঘোষণার পরই যেভাবে প্রচারে ঝড় তুলছেন অভিনেত্রী প্রার্থী, তাতে খানিকটা অবাক দলের কর্মীরাই। পুরোদস্তুর রাজনীতিকরাও অভিনেত্রীর সঙ্গে পেরে উঠছেন না। অনেকে বলছেন, মিমির এই রোজা রাখার ঘোষণাতেই স্পষ্ট, ভোটের আগে ‘পাবলিক পালস’ ও দলিয় লাইন বুঝতে শিখে গিয়েছেন অভিনেত্রী।

আরও পড়ুনঃ দলের প্রার্থীকে জেতালেই পুরষ্কার সোনার গহনা, বিদেশ ভ্রমনের টিকিট

আর এরপরেই মিমিকে একহাত নেওয়া হয়েছে বঙ্গ বিজেপির তরফ থেকে। তৃণমূলের মিমির বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু তোষণের অভিযোগ এনেই চলছে বিজেপির প্রচারও। সবমিলিয়ে ‘ফিল্মি দুনিয়া’র পর রাজনীতির বক্স অফিসেও এখন ‘মেগাহিট’ অভিনেত্রী মিমি।

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন