সব্যসাচীর সঙ্গে দিলীপের সাক্ষাৎ ঘিরে জল্পনা ফের চরমে

462
সব্যসাচীর সাথে দিলীপের সাক্ষাৎ ঘিরে জল্পনা চরমে/The News বাংলা
সব্যসাচীর সাথে দিলীপের সাক্ষাৎ ঘিরে জল্পনা চরমে/The News বাংলা

তাহলে কি বিজেপিতেই যোগ দিতে চলেছেন বিধাননগরের মেয়র ও রাজারহাট নিউটাউনের তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত? একের পর এক ঘটনা আর ক্রমাগত সব্যসাচীর রহস্যব্যঞ্জক মন্তব্য, সেই সন্দেহকে তিনি নিজেই জিইয়ে রাখছেন। আর এবার রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে আবার সংবাদ শিরনামে সব্যসাচী দত্ত।

আরও পড়ুনঃ ধামাচাপার দেওয়ার চেষ্টা বিফলে, অভিষেকের স্ত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর শুল্ক দফতরের

শনিবার রাতেই সল্টলেকের সিই ব্লকের একটি বাড়িতে বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্তের সাথে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের সাক্ষাৎকার হয়েছে বলে সূত্রের খবর। আর তাতেই জল্পনা ফের চরম আকার নিয়েছে। ফের খবরে বিধাননগরের মেয়র ও রাজারহাট নিউটাউনের এই তৃণমূল বিধায়ক।

আরও পড়ুনঃ মুক্তির আগেই বিতর্কে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বায়োপিক

এর আগে মুকুল রায় সব্যসাচী দত্তের বাড়িতে গিয়ে তাঁর সঙ্গে দেখা করেছিলেন। বিতর্কে জল ঢালতে সেই সাক্ষাৎকারকে নেহাতই সৌজন্যমূলক বলে তিনি মন্তব্য করেছিলেন।

আরও পড়ুনঃ ইন্ডিয়ান আর্মি অফিসারদের কম্যান্ডো ট্রেনিং দিচ্ছেন এক নারী

মুকুল রায় তার বাড়িতে লুচি আলুর দম খাওয়ার আবদার করেছিলেন বলেই তিনি অতিথি আপ্যায়ন করেছিলেন, তৃণমূল নেতৃত্বকে জবাবদিহি করতে গিয়ে এমনই দাবি করেছিলেন সব্যসাচী। কিন্তু শনিবার বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের সাথে সাক্ষাৎকার তৃণমূলের পক্ষে মোটেই স্বস্তিদায়ক খবর নয়।

আরও পড়ুনঃ পাকিস্তানে দুই হিন্দু নাবালিকাকে শ্লীলতাহানি ও জোরপূর্বক মুসলিম ধর্মান্তর

এই প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষকে প্রশ্ন করা হলে, তিনি সব্যসাচী ও তার ছেলেদের সাথে একত্রে খাওয়া দাওয়ার ব্যাপারটি স্বীকার করে নিয়েছেন। যদিও সব্যসাচী দত্তের বিজেপিতে যোগদানের ব্যপারে জিজ্ঞেস করা হলে, তিনি এই বিষয়টি এড়িয়ে গিয়েছেন। দিলীপ ঘোষ বলেছেন, “অপেক্ষা করুন, আরও অনেক চমক রয়েছে”।

আরও পড়ুনঃ রাহুলের জেতা নিয়ে সংশয় আমেঠীতে, সম্মান রাখতে লড়তে পারেন দক্ষিনের এই কেন্দ্র থেকে

সব্যসাচী দত্তকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বিষয়টি সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন। সব্যসাচীকে ফোন করা হলে তিনি জানান, ওই মুহূর্তে তিনি তার পরিবারের সাথে রেস্টুরেন্টে খাওয়া দাওয়া করছিলেন। সেই সময় দিলীপ ঘোষও সেখানে আসেন। নেহাতই কাকতালিয় ঘটনা। তবে সব কাকতালিয় ঘটনাই তাঁর সঙ্গে কেন ঘটে, সেই প্রশ্নের জবাব দেননি তিনি।

আরও পড়ুনঃ বাম কংগ্রেস বিজেপির আপত্তি নেই, কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে কেন মাথাব্যথা শুধু তৃণমূলের

উল্লেখ্য, দুই দিন আগেই দোল উৎসব পালনে, সল্টলেকে মাড়োয়ারিদের একটি অনুষ্ঠানে সব্যসাচী দত্তকে “ভারত মাতা কি জয়” বলতে শোনা যায়। হঠাৎ সব্যসাচীর মুখে এই শ্লোগান নতুন করে জল্পনার জন্ম দিয়েছিল। সব্যসাচী মুখে অস্বীকার করলেও গতকাল সব্যসাচীর সাথে সাক্ষাৎ নিয়ে দিলীপ ঘোষের স্বীকারোক্তি জল্পনাকে যে বহুগুন বাড়িয়ে দিয়েছে, তা নিঃসন্দেহে বলাই যায়। তবে এবারও সব জল্পনা উড়িয়ে দিয়েছেন সব্যসাচী দত্ত।

আরও পড়ুনঃ বিরোধী মহিলা প্রার্থীদের ‘মাল’ সম্বোধন করে কুরুচিপূর্ণ আক্রমণ ফিরহাদের

আর বিধাননগরের মেয়র ও রাজারহাট নিউটাউনের তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত-র এইসব ঘটনা চরম অস্বস্তিতে ফেলেছে তৃণমূল কংগ্রেসকে। দল তাঁর বিরুদ্ধে বড় কোন ব্যবস্থা নিক, এরই কি অপেক্ষা করছেন সব্যসাচী? তাহলে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি যাবার একটা কারণ থাকবে তাঁর কাছে। প্রশ্ন কিন্তু উঠছে এটাই।

আরও পড়ুনঃ বাবুলকে হারাতে ১ কোটি টাকার কাজের টোপ, বিতর্কিত ঘোষণা মেয়রের

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন