পাকিস্তানে দুই হিন্দু নাবালিকাকে শ্লীলতাহানি ও জোরপূর্বক মুসলিম ধর্মান্তর

625
পাকিস্তানে নয়, খাস কলকাতায় হিন্দু মেয়েকে অপহরণ করে ধর্মান্তকরণ করার অভিযোগ/The News বাংলা
পাকিস্তানে নয়, খাস কলকাতায় হিন্দু মেয়েকে অপহরণ করে ধর্মান্তকরণ করার অভিযোগ/The News বাংলা (প্রতীকী ছবি)
Simple Custom Content Adder

পাকিস্তানে দুই হিন্দু নাবালিকাকে শ্লীলতাহানি ও জোরপূর্বক ধর্মান্তর। আর এর জেরেই গোটা বিশ্বে পাকিস্তানের নাম পুড়েছে আরও একবার। বিশ্বের সব দেশ থেকে উঠেছে প্রতিবাদ। পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভারতকে সংখ্যালঘুদের নিয়ে পরামর্শ দেবেন বলেছিলেন। তাঁর দেশেই সংখ্যালঘুদের অবস্থা অত্যন্ত খারাপ।

আরও পড়ুনঃ আইএমএফ রিপোর্টে দ্রুততম অর্থনৈতিক বৃদ্ধির তালিকায় ভারত

দুই হিন্দু নাবালিকাকে কিডন্যাপ করে জোরপূর্বক ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত করার ঘটনা ঘটেছে পাকিস্তানের সিন্ধুর ঘোটকী জেলার ধারকি শহরে। তাদের শ্লীলতাহানিও করা হয়। তারপর তাদের জোর করে হিন্দু ধর্ম থেকে ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত করা হয়। প্রধানমন্ত্রী হবার আগে ইমরান খানের প্রতিশ্রুতি যে শুধুই প্রতিশ্রুতিই তা আরও একবার প্রমাণিত হল।

আরও পড়ুনঃ লোকসভা রিপোর্টে গত ৫ বছরে তৃণমূল সাংসদদের পারফরম্যান্স লজ্জাজনক

গত ২০শে মার্চ পাকিস্তানে পালিত হয়েছে হোলি। সেদিনই সন্ধ্যায় হোলি খেলার সময় কিডন্যাপ করা হয় দুই নাবালিকা রবীনা ও রীনাকে। এর আগে ৬ই ফেব্রুয়ারি সাদফ খান নামের এক খ্রীষ্টান নাবালিকাকেও জোরপূর্বক ধর্মান্তরিত করা হয়। এর আগেই কমল ও সনিয়া নামের দুই নাবালিকাকেও একই ভাবে ধর্মান্তরিত করা হয়। বারবার সংখ্যালঘুদের ওপর আক্রমনে তাদের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। প্রশ্নের মুখে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরানের প্রতিশ্রুতি।

আরও পড়ুনঃ ভারতের কূটনৈতিক চাপে পাকিস্তানকে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবার নির্দেশ আমেরিকার

এই ঘটনায় পাকিস্তানের হিন্দু এবং অন্যান্য সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মধ্যে তীব্র অসন্তোষ দানা বেধেছে। ২০১৮ সালে পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে ইমরান খান ক্ষমতায় আসার আগেই পাকিস্তানের হিন্দু ও অন্যান্য সংখ্যালঘুদের জীবন ও সম্পত্তির সুরক্ষার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সেই প্রতিশ্রুতি স্মরণ করিয়েই স্থানিয় হিন্দুরা অভিযুক্তের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।

আরও পড়ুনঃ নরেন্দ্র মোদী সরকারের চাপে লন্ডনে গ্রেফতার ব্যাঙ্ক কেলেঙ্কারির খলনায়ক নীরব মোদী

পাকিস্তানের হিন্দু সেবা ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের সভাপতি সঞ্জেশ ধঞ্জা জানিয়েছেন, হোলির বিকেলেই রবীনা ও রীনা নামের ১৩ ও ১৫ বছরের দুটি নাবালিকা মেয়েকে কিডন্যাপের পর বিয়ে করে অভিযুক্ত এক ব্যক্তি। তার পরেই দুটি মেয়েকেই জোরপূর্বক ইসলামে ধর্মান্তরিত করা হয়। পাকিস্তানের ধর্মীয় সংখ্যালঘুরা আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন বলে তিনি জানান।

আরও পড়ুনঃ ক্ষমতায় ফের মোদী, ভোটের আগেই জানাচ্ছে সাট্টাবাজার

পাকিস্তানের হিন্দু সেবা ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের সভাপতি জানিয়েছেন, স্থানিয় হিন্দুদের বিক্ষোভের পর পুলিশের তরফে শুধুমাত্র এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। কিছুদিন আগেই ভারতকে খোঁচা দিয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ট্যুইট করে বলেছিলেন, ‘নতুন পাকিস্তান হচ্ছে জিন্নাহর পাকিস্তান, যেখানে সব সংখ্যালঘুরা সমানাধিকার পাবেন’। সেটা যে শুধু কথার কথা, তা আবার প্রমাণ হয়ে গেল।

আরও পড়ুনঃ ২০২৫ সালের পর ভারতের অংশ হবে পাকিস্তান, ঘোষণা আরএসএস নেতার

পাকিস্তানের সংখ্যালঘুরা ইমরান খানকে তার দেওয়া পূর্ব প্রতিশ্রুতির উত্তর চেয়েছেন। তারা প্রশ্ন তুলেছেন, এই ঘটনায় কি ইমরান খান আক্রান্তদের পাশে দাঁড়াবেন? আবার এই ঘটনা ঘটবে না, তার প্রতিশ্রুতি কে দেবে? উঠেছে প্রশ্ন।

আরও পড়ুনঃ নির্বাচন কমিশনের নতুন অ্যাপ সি ভিজিল, জনতার অভিযোগে ১০০ মিনিটের মধ্যে ব্যবস্থা

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন