সন্ত্রাসবাদ বড় ইস্যু না হলে নিরাপত্তার বেষ্টনী ত্যাগ করুন, রাহুলকে পরামর্শ সুষমার

289
সন্ত্রাসবাদ বড় ইস্যু না হলে নিরাপত্তার বেষ্টনী ত্যাগ করুন, রাহুলকে পরামর্শ সুষমার/The News বাংলা
সন্ত্রাসবাদ বড় ইস্যু না হলে নিরাপত্তার বেষ্টনী ত্যাগ করুন, রাহুলকে পরামর্শ সুষমার/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

সম্প্রতি রাহুল গান্ধী বিভিন্ন জনসভায় সন্ত্রাসবাদকে লঘু করে অন্যান্য অনেক সমস্যাপূর্ণ ইস্যুকে তুলে ধরেছেন জনসাধারণের সামনে। আর তাতেই রাহুলকে কটাক্ষ করলেন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। সন্ত্রাসবাদ যদি কোনো গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু না হয় তাহলে রাহুল গান্ধী তার নিরাপত্তার বেষ্টনী তুলে নিন, রাহুলকে পরামর্শ দিলেন সুষমা।

আরও পড়ুনঃ ধান কাটার পরে এবার ট্রাক্টরে চড়ে কৃষকদের মন জয়ে সচেষ্ট হেমা মালিনী

সুষমা স্বরাজ শুক্রবার হায়েদ্রাবাদে এক জনসভায় বলেন, রাহুল গান্ধীর কাছে কর্মসংস্থান গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু, কিন্তু সন্ত্রাসবাদ ইস্যু নয়। সন্ত্রাসবাদ ইস্যু না হলে কেনো তিনি সিকিউরিটি নিয়ে ঘোরেন, প্রশ্ন তোলেন সুষমা। রাজীব গান্ধীকে হত্যার পর কংগ্রেস পরিবার সারাক্ষনের জন্য সিকিউরিটি নিয়ে রেখেছে তাদের সাথে, রাহুলকে মনে করিয়ে দেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ বিজেপি নেতাদের মাথা কেটে দেবার নির্দেশ দিলেন কংগ্রেস নেতা, ভাইরাল ভিডিও

এদিন হায়েদ্রাবাদের নির্বাচনী জনসভায় সুষমা স্বরাজ এয়ার স্ট্রাইকের প্রসঙ্গে বলেন, পুলওয়ামায় সন্ত্রাসবাদী হানার পরিপ্রেক্ষিতে ভারত এয়ার স্ট্রাইকের মাধ্যমে উপযুক্ত জবাব দিয়েছে, কিন্তু দেশের প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে ভরসা করতে না পেরে পাকিস্তানের বক্তব্যকেই অনেকে বেশি গুরুত্ব সহকারে দেখছেন। বিদেশমন্ত্রী আরও বলেন, ভারতের এয়ার স্ট্রাইকের পদক্ষেপকে বিশ্বের বহু রাষ্ট্র সমর্থন জানিয়েছে।

আরও পড়ুনঃ ধাক্কা খেল মোদী সরকার, পাকিস্তানের কোন এফ ১৬ বিমান ধ্বংস হয় নি জানাল আমেরিকা

২০০৮ সালে মুম্বাইয়ে সন্ত্রাসবাদী হানার পর কংগ্রেসের ভূমিকাও তুলে ধরেন তিনি। ২০০৮ সালের ২৬শে নভেম্বর মুম্বাইয়ে সন্ত্রাসবাদী হানার ৪০ জন বিদেশি নাগরিক সহ ১৬৬ জন নিহত হয়। সেই সময় সরকারের উচিৎ ছিল পাকিস্তানকে প্রত্যাঘাত করা, কিন্তু তৎকালীন ইউপিএ সরকারের তা করার সাহস হয়নি বলে কংগ্রেসকে কটাক্ষ করেন সুষমা।

আরও পড়ুনঃ দিদি মুখ ঘোরাল, দিদির ভাই হাত বাড়াল

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন