চিত্র পরিচালক, লেখক ও বিজ্ঞানীদের পর এবার ৬০০ নাট্যকর্মী ঘৃণার রাজনীতির বিরুদ্ধে

478
চিত্র পরিচালক, লেখক ও বিজ্ঞানীদের পর এবার ৬০০ নাট্যকর্মী ঘৃণার রাজনীতির বিরুদ্ধে/The News বাংলা
চিত্র পরিচালক, লেখক ও বিজ্ঞানীদের পর এবার ৬০০ নাট্যকর্মী ঘৃণার রাজনীতির বিরুদ্ধে/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

চিত্র পরিচালক, লেখক, বিজ্ঞানীদের পর এবার ৬০০ নাট্যকর্মী ও কলাকুশলী মোদীর বিজেপিকে ভোট না দেওয়ার জন্য সরাসরি আবেদন জানালেন দেশের ভোটারদের কাছে। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে দেশের সাধারণ মানুষের কাছে তাদের আহ্বান, ধর্মান্ধতা, ঘৃণার রাজনীতির বিরুদ্ধে ভোট দিন।

আরও পড়ুনঃ চিত্র পরিচালক ও লেখকদের পর ঘৃণার রাজনীতি নিয়ে সরব দেশের সেরা বিজ্ঞানীরা

বিজেপি ও তার শরিকদের ভোট দেবেন না। জনগণের কাছে এই আবেদন রাখলেন ৬০০ জন শিল্পী। যৌথ বিবৃতিতে তাঁদের আরজি, “ধর্মান্ধতা ও ঘৃণাকে ক্ষমতা থেকে সরাতে ভোট করুন”। বিবৃতিতে যে ৬০০ জনের স্বাক্ষর রয়েছে, তাঁদের মধ্যে রয়েছেন অমোল পালেকর, অনুরাগ কাশ্যপ, লিলেট দুবে, নাসিরুদ্দিন শাহ, অভিষেক মজুমদার, মহেশ দত্তানি, কঙ্কনা সেনশর্মা, রত্না পাঠক শাহ ও সঞ্জনা কাপুর সহ অসংখ্য স্টেজ পারফর্মার।

আরও পড়ুনঃ ঘৃণার রাজনীতির বিরুদ্ধে ভোট দেওয়ার আবেদন জানালেন দেশের ২০০ জন লেখক

১২টি ভাষায় প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “দুর্বলদের সশক্তিকরণে, স্বাধীনতা রক্ষায়, পরিবেশ রক্ষায় ও বৈজ্ঞানিক চিন্তাভাবনার প্রসারকে ভোট দিন”। আসন্ন নির্বাচন দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বলে উল্লেখ করে বলা হয়েছে। বলা হয়েছে, “৫ বছর আগে যে মানুষটি নিজেকে দেশের ‘রক্ষাকর্তা’ হিসেবে নিজেকে চিহ্নিত করেছিলেন, তিনি তাঁর নীতির কারণেই লক্ষ লক্ষ মানুষের জীবন ধ্বংস করে দিয়েছেন”।

আরও পড়ুনঃ কেরালার ওয়াইনডে মনোনয়ন জমা দিয়ে আমেঠীতে হার পাকা করল রাহুল

নমোর জমানায় দেশের সংবিধান হুমকির মুখে রয়েছে বলে তোপ দেগে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “আজ আমাদের ভালোবাসার সংবিধান বিপদের মুখে। গান, নাচ, হাসি বিপদের মুখে”। অমল পালেকর, নাসিরুদ্দিন শাহ, মহেশ দত্তানি, রত্না পাঠক, ঊষা গঙ্গোপাধ্যায়, শান্তা গোখলে, কঙ্কনা সেন শর্মা, অভিষেক মজুমদার, চৈতি ঘোষ, এম কে রাইনা, অমরজিৎ সিংহ-সহ প্রায় ৬০০ গ্রুপ থিয়েটার কর্মী, অভিনেতা ও কলাকুশলীর সই করা এই বিবৃতি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যে ৭ টা নাগাদ artistuniteindia.com নামের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হয়।

আরও পড়ুনঃ অগাস্টা ওয়েস্টল্যান্ড হেলিকপ্টার দুর্নীতিতে ইডির চার্জশিটে সনিয়া ঘনিষ্ঠ আহমেদ প্যাটেল

১২ টি ভাষায় প্রকাশিত এই বিবৃতিতে দেশের মানুষের উদ্দেশ্যে থিয়েটার কর্মীদের বার্তা, পাঁচ বছর আগে উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ক্ষমতায় এসে বিজেপি কেবল গোঁড়া হিন্দুত্ববাদের নাম করে হিংসা ও ঘৃণার রাজনীতি করে গিয়েছে। এই বিবৃতিতে নাট্যকর্মী, অভিনেতা ও কলাকুশলীরা মোদীর নাম না করে অভিযোগ করেছেন, “দেশ রক্ষার নামে পাঁচ বছর ধরে কোটি কোটি মানুষের জীবিকা ধ্বংস করেছেন এক ব্যক্তি। তাঁর প্রতিশ্রতি মাফিক কালোটাকা দেশে ফেরেনি, বরং দেশের টাকা লুঠ করে পালিয়েছেন একাধিক মানুষ”।

আরও পড়ুনঃ প্রথম দফার ভোটে বাংলায় অতিরিক্ত পুলিশ পর্যবেক্ষক নিয়োগ করল কমিশন

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “এই পাঁচ বছরে দেশজুড়ে আর্থিক বৈষম্য আরও তীব্র হয়েছে। ধনীদের সম্পত্তি লাফিয়ে বেড়েছে, আর দরিদ্ররা আরও গরিব হয়েছেন”। বিবৃতিতে নাট্যকর্মীদের অভিযোগ, “কেউ প্রশ্ন করলে অথবা সত্যি কথা বলার স্পর্ধা দেখালে, তাঁকে দেশদ্রোহী বলে দাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে। মানুষের খাদ্যাভাস থেকে ধর্মীয় অনুষ্ঠান, প্রতিটি ক্ষেত্রেই বিভাজনের রাজনীতি করা হচ্ছে।

আরও পড়ুনঃ অভিষেকের স্ত্রী রুজিরাকে শুল্ক দফতরের সামনে হাজিরার নির্দেশ হাইকোর্টের

দেশের মানুষের কাছে নাট্যকর্মীদের আবেদন, ভারতীয় সংবিধানকে এবং ধর্মনিরপেক্ষতার ঐতিহ্য রক্ষায় বিজেপির বিরুদ্ধে ভোট দিন। দেশের মানুষের কাছে তাঁদের বার্তা, ধর্মনিরপেক্ষতা, মানুষের মৌলিক অধিকার রক্ষা করতে, লোকসভা নির্বাচনে ভোট দিন ভেবেচিন্তে।

আরও পড়ুনঃ ভোট প্রচারে হেলিকপ্টার পাচ্ছেন না মমতা, অভিযোগের তীর কেন্দ্রের দিকে

সপ্তাহখানেক আগেই ১০০ জনের বেশি চিত্র পরিচালক বিজেপিকে ভোট না দেওয়ার জন্য মানুষের কাছে আবেদন রেখেছিলেন। গত সোমবার ২০০ জন লেখক-সাহিত্যিক ‘ঘৃণার রাজনীতি’র বিরুদ্ধে মানুষকে ভোট দিতে আবেদন করেছিলেন। বৃহস্পতিবারই এসেছিল অন্তত ১৫০ জন বিজ্ঞানীর বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে বিবৃতি। নজিরবিহীনভাবে এবার প্রায় ৬০০ জন নাট্যকর্মী, অভিনেতারা সোচ্চার হলেন বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুনঃ মমতার দাবি না মেনে জঙ্গলমহল থেকে ৩০ কোম্পানি বাহিনী তুলছে নির্বাচন কমিশন

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন