ভারতের বিমান হানায় বালাকোটে ২০০ জঙ্গির মৃত্যু, ভিডিওতে স্বীকার পাক সেনার

1171
ভারতের বিমান হানায় বালাকোটে ২০০ জঙ্গির মৃত্যু, ভিডিওতে স্বীকার পাক সেনার/The News বাংলা
ভারতের বিমান হানায় বালাকোটে ২০০ জঙ্গির মৃত্যু, ভিডিওতে স্বীকার পাক সেনার/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

ভারতীয় বিমান বাহিনীর বোমা ফেলার পর পাকিস্তান সেনা প্রায় ২০০ জঙ্গির মৃতদেহ সরিয়েছিল, ভিডিওতে জানিয়েছেন এক পাক সেনা আধিকারিক। ওই ভিডিও প্রকাশ্যে আসায় ভারতীয় বিমান হানায় বালাকোটে জঙ্গি মৃত্যুর অকাট্য প্রমাণ পাওয়া গেল। এর আগেও একই কথা বলেছিলেন এক ইতালীয় সাংবাদিক। এর ফলে বালাকোট বিমান হামলায় জঙ্গি মৃত্যুর অকাট্য প্রমাণ পাওয়া গেল বলেই মনে করা হচ্ছে।

দেখুন শুনুন সেই ভিডিওঃ

ভিডিও তোলা হয়েছে শোকস্তব্ধ পরিবারের মধ্যে থেকে। সেখানে হাজির ছিল অনেক পাক সেনাও। সেখানেই এই ভিডিও তোলা হয়েছে। সেই ভিডিওতেই বলা হয়েছে, ২০০ জনের মৃত্যু হয়েছে। ওই পাক সেনা আধিকারিক, পাক সেনা ও শোকস্তব্ধ পরিবারের মধ্যে থেকে বসে বলেছেন ‘এটা জেহাদের অংশ’। ২০০ বান্দা শহিদ হয়েছেন বলে ভিডিওতে জানিয়েছেন ওই পাক আধিকারিক। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে কান্নাকাটি চলছে মৃতদের পরিবারে। তবে এই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করা যায়নি।

আরও পড়ুনঃ জঙ্গি প্রশিক্ষণ চলায় ১৮২টি মাদ্রাসা বন্ধ করল পাকিস্তান

পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের বালাকোটে ভারতীয় বিমান বাহিনীর হামলার কিছুক্ষণ পরই ঘটনাস্থল থেকে অন্তত ৩৫টি মৃতদেহ সরিয়ে ফেলেছিল পাক সেনারা, আগেই জানিয়েছিলেন ইতালীয় সাংবাদিক ফ্রান্সেসা মারিনো, তা প্রকাশিত হয়েছিল সংবাদসংস্থা ফার্স্ট পোস্টে।

আরও পড়ুনঃ পাকিস্তানি চায়ের বিজ্ঞাপনের ভাইরাল ছবিতেও ভারতীয় পাইলট অভিনন্দন

ওই সাংবাদিক জানিয়েছিলেন, মৃতদের মধ্যে ছিল জইশ-ই-মহম্মদের সদস্য, প্রাক্তন পাক সেনাকর্তা এবং প্রশিক্ষণ নিতে আসা আত্মঘাতী সদস্যরা। পাকিস্তানের স্থানীয় প্রশাসনের কর্মীদের কাছ থেকে অত্যন্ত গোপনীয়তার সঙ্গে এই খবর জোগাড় করেছেন বলে জানিয়েছিলেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের এফ ১৬ এর অপব্যবহার, মার্কিন রিপোর্ট

পাকিস্তানের সীমানা অতিক্রম করে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি বালাকোটে হামলা চালায় ভারতীয় সেনাবাহিনী। জানা গিয়েছিল, বালাকোটে হামলার বোমাবর্ষণের পরই ঘটনাস্থলে পৌঁছেছিল স্থানীয় প্রশাসনের কর্তারা। কিন্তু ততক্ষণে ওই পুরো এলাকা ঘিরে ফেলেছিল পাকিস্তানের সেনাবাহিনী। পুলিশকেও ঘটনাস্থলে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। এছাড়া যারা অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে এসেছিলেন, সেই স্বাস্থ্যকর্মীদের মোবাইল ফোনও কেড়ে নিয়েছিল পাক সেনারা।

জানা গিয়েছিল, ভারতীয় বোমার আঘাতে নিহত হয়েছে পাক গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার সার্ভিসেস ইন্টেলিজেন্স (আইএসআই)-এর এক প্রাক্তন অফিসার, যাকে কর্নেল সেলিম বলে জানে স্থানীয় বাসিন্দারা। গুরুতর আহত হয়েছে আর এক প্রাক্তন সেনাকর্তা কর্নেল জারার জাকরি।

ফার্স্ট পোস্টের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছিল, ভারতীয় বিমান বাহিনীর ওই হামলায় নিহত হয়েছে পেশোয়ার থেকে জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ দিতে যাওয়া জইশ জঙ্গি মুফতি মইন। মারা গিয়েছে ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস (আই-ই-ডি)ফেব্রিকেশনে অন্যতম সেরা জইশ বিশেষজ্ঞ উসমান গনি-ও।

আরও পড়ুনঃ পাকিস্তানে বিমানহানার প্রমাণ সরকারের হাতে, বাকি সব গুজব

এবার পাক সেনা আধিকারিকের এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, মৃত জঙ্গিদের পরিবারের মধ্যে বসে থেকেই কথা বলছেন ওই মার্কিন আধিকারিক। স্বান্তনা দিচ্ছেন মৃত জঙ্গিদের পরিবারকে, তাদের বাচ্চাদের। পরিস্কার সেখানে ২০০ জনের মারা যাবার কথা বলা হচ্ছে। সেখানে রয়েছে অনেক পাক সেনাও। পাক সেনার সামনেই বলা হচ্ছে ২০০ জনের মারা যাবার কথা।

ভারতীয় বিমান বাহিনীর দাবি ছিল, হামলায় তারা যা করতে চেয়েছিলেন, তা করতে পেরেছেন। এছাড়া তাদের দাবি ছিল, জইশ শিবিরে কতটা ক্ষতি হয়েছে সেই তথ্যপ্রমাণ তাঁদের হাতে আছে। সময় হলেই তা সামনে আনবে সরকার, বলে জানিয়েছিলেন ভারতীয় সেনাকর্তারা।

আরও পড়ুনঃ ভারতের চাপে মাথা নত করল পাকিস্তান

পাকিস্তানের দাবি ছিল, ভারতীয় বিমান বাহিনীর হামলায় কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। হামলায় শুধু কয়েকটি পাইন গাছ উপড়ে পড়েছে বলে দাবি ছিল পাকিস্তানের। ভারতে বিরোধী দলের নেতা নেত্রীরাও সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন বিমান হানার সাফল্য নিয়ে। তবে পাক সেনার এই ভিডিও প্রকাশ্যে আসায় সেই সব দাবি বাতিল হয়ে গেল বলেই মনে করা হচ্ছে। আর এই ভিডিওকেই এবার হাতিয়ার করতে চলেছে বিজেপি।

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন