রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বে ভরা তৃণমূলের তারকা তালিকা নির্বাচন কমিশনে

339
রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্বে ভরা তৃণমূলের তারকা তালিকা/The News বাংলা
রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্বে ভরা তৃণমূলের তারকা তালিকা/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

তৃণমূল কংগ্রেসের ষ্টার ক্যাম্পেনার এর তালিকা জমা পড়লো নির্বাচন কমিশনে। আগাগোড়া রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব দিয়ে ভরা তালিকা। ৪০ জনের নামের তালিকায় প্রার্থীরা ছাড়া অরাজনৈতিক ব্যক্তি শুধু অরিন্দম শীল ও কৌশিক গাঙ্গুলি। অবশ্যই তৃণমূলের তারকা তালিকায় প্রধান মুখ সেই মমতাই।

ভোট প্রচারে এই ৪০ জনের উপরেই ভরসা রাখলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই ৪০ জনকেই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় প্রচারে পাঠাবে তৃণমূল, সাহায্য করবে নির্বাচন কমিশন। এই ৪০ জন ষ্টার ক্যাম্পেনার রাজ্যের যেখানে খুশি প্রচারে যেতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ ভোটের গানে বিপাকে বাবুল, কমিশনের হাতে টুইট অস্ত্র

তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হয়েছে অনেক আগেই। প্রচারও শুরু হয়ে গিয়েছে। হেভিওয়েট ক্যাম্পেনারদের একটি তালিকাও তৈরি করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূল কংগ্রেস দলের ভাষায় এঁরা হলেন স্টার ক্যাম্পেনার। এঁরা কেউ কেউ লোকসভা ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন, আবার কেউ কেউ প্রার্থী নন। কিন্তু এঁরা যে কোনো কেন্দ্রে গিয়ে প্রচার করতে পারবেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় মোট ৪০ জন স্টার ক্যাম্পেনার এর নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ বারাণসী থেকে লড়বেন মোদী, গান্ধীনগরে আডবানির পরিবর্তে অমিত শাহ

তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি তথা সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সুব্রত বক্সী দলের তরফে এই লিস্টটি প্রকাশ করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, এটিকে নির্বাচন কমিশনে পাঠানো হয়েছে এবং কমিশন এটিকে অনুমোদন করেছে।

আরও পড়ুনঃ বিজেপির প্রার্থী তালিকা প্রকাশ, বাংলায় বিজেপি প্রার্থীদের নাম

প্রার্থী তালিকার মতো দলের ‘স্টার ক্যাম্পেনার’ তালিকাতেও এ বার অনেক বদল ঘাসফুলের। রাজনৈতিক মুখের উপস্থিতি বাড়লেও বেশ কিছু সংযোজন-বিয়োজন হয়েছে। দলে থেকেও দূরত্ব বাড়িয়েছেন এমন নেতাদের নাম বাদ পড়েছে। আবার বেশ কয়েকজন মন্ত্রী, সাংসদ, বিধায়ক তালিকায় নতুন এসেছেন।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় নির্বাচন কমিশনের কিছু কর্মীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ বিজেপির

নতুন সেলিব্রিটি প্রার্থীরা ছাড়াও তালিকায় আছেন অভিনয় জগতের আরও কয়েক জন। তবে দলীয় রাজনৈতিক নেতাদেরই প্রাধান্য এইবার। সবার উপরে অবশ্যই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দুই অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী এবং নুসরত জাহানই তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায় সব থেকে বড় চমক। তাঁরা স্টার ক্যাম্পেনারের তালিকাতেও রয়েছেন।

আরও পড়ুনঃ বাবুলকে ‘বাচ্চা ছেলে’ বলে কটাক্ষ করলেন ‘সেন্সেশনাল’ মুনমুন

কিন্তু আসানসোলের প্রার্থী মুনমুন সেনের নাম নেই সে লিস্টে। তবে প্রার্থী তালিকা প্রকাশের আগে জল্পনা চলা অভিনেত্রী ইন্দ্রাণী হালদার হয়েছেন স্টার ক্যাম্পেনার। অভিনেতা-সাংসদ দেব গত বিধানসভাতেও এই তালিকায় ছিলেন, লোকসভাতেও রয়েছেন। তবে স্বাভাবিকভাবেই এ বার নাম নেই মেগাস্টার মিঠুন চক্রবর্তীর। দলের সিনিয়র ও হেভিওয়েট সাংসদদের মধ্যে অনেকেই স্টার ক্যাম্পেনার হচ্ছেন।

আরও পড়ুনঃ বাবুলকে হারাতে ১ কোটি টাকার কাজের টোপ, বিতর্কিত ঘোষণা মেয়রের

তবে ২০১৪-য় তালিকায় না থাকা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় এবার রয়েছেন। ১৪-য় প্রথমবার সাংসদ হওয়া অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও এবার স্টার ক্যাম্পেনার। আবার ২০১৪-র স্টার ক্যাম্পেনার সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী এবার তালিকায় নেই। নেই শতাব্দী রায়ও। নতুন নাম সুজিত বসু, শান্তনু সেন, গৌতম দেব ও সৌরভ চক্রবর্তীর।

আরও পড়ুনঃ ভোটের দিন ঘোষণার পরেই প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে বাংলায় এগিয়ে তৃণমূল

মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরীও স্টার ক্যাম্পেনার হয়েছেন। সুব্রত মুখোপাধ্যায়, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ও রয়েছেন তালিকায়। তবে নাম নেই মানস ভুইঁয়ার। আদিবাসী সমাজের নেতাদের মধ্যে ২০১৪-য় স্টার ক্যাম্পেনার ছিলেন শান্তিরাম মাহাতো, বন্ধু তির্কের মতো নেতারা। এবার তালিকায় স্থান পেয়েছেন সুকুমার হাঁসদা। কিছুদিন আগেই যিনি বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার হয়েছেন।

আরও পড়ুনঃ বিরোধী মহিলা প্রার্থীদের ‘মাল’ সম্বোধন করে কুরুচিপূর্ণ আক্রমণ ফিরহাদের

তবে জল্পনার কেন্দ্রে থাকা সব্যসাচী দত্তের নাম তালিকায় নেই। তালিকায় নেই প্রাক্তন মেয়র ও প্রাক্তন মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়ও। সব মিলিয়ে রাজনৈতিক নেতাদের উপরই ভরসা রাখলেন নেত্রী। অভিনেতা ও অভিনেত্রীদের রেখেও রাজনৈতিক নেতাদের উপরই ভরসা রেখে নিজের দৃষ্টিভঙ্গি পরিষ্কার বুঝিয়ে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুনঃ নির্বাচন কমিশনের নতুন অ্যাপ সি ভিজিল, জনতার অভিযোগে ১০০ মিনিটের মধ্যে ব্যবস্থা

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন