মোদীর অরুণাচল সফর নিয়ে চিনকে উপযুক্ত জবাব দিল ভারত

404
মোদীর অরুণাচল সফর নিয়ে চিনকে উপযুক্ত জবাব দিল ভারত/The News বাংলা
মোদীর অরুণাচল সফর নিয়ে চিনকে উপযুক্ত জবাব দিল ভারত/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর অরুণাচল সফর নিয়ে আপত্তি তুলেছিল। শনিবার মোদীর অরুণাচল সফর নিয়ে এবার চিনকে উপযুক্ত জবাব দিল ভারত। ভারতের রাজ্যে ভারতের প্রধানমন্ত্রী যাবেন, তাতে কেউ নাক গলাতে পারে না, চিনকে জানিয়ে দিল ভারত।

আরও পড়ুনঃ সমাজের রীতি ভেঙে বাংলার স্কুলে একি করল সুন্দরী ছাত্রী

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর অরুণাচল প্রদেশ সফর নিয়ে তীব্র আপত্তি জানিয়েছিল চিন। মোদীর অরুণাচল সফর নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে চিনের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র হুয়া চুনইং বলেছেন, “চিন-ভারত সীমান্তের প্রশ্নে চিনের অবস্থান স্পষ্ট। চিন সরকার কোনওদিনই তথাকথিত অরুণাচল প্রদেশকে স্বীকৃতি দেয়নি। চিন-ভারত সীমান্তের পূর্ব অংশে ভারতের নেতাদের সফরের তীব্র বিরোধী চিন’।

আরও পড়ুনঃ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর গলা দিয়েই শুরু হচ্ছে বাংলার নতুন একটি শিল্প

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শনিবার আসাম, অরুণাচল প্রদেশ ও ত্রিপুরাতে বহু প্রকল্পের উদ্বোধন করছেন। গুয়াহাটির কাছে চাংসারিতে মোদী প্রায় ১৭ হাজার কোটি টাকার একাধিক প্রকল্পের শিলান্যাস করবেন। এগুলির মধ্যে আছে গুয়াহাটি ও উত্তর গুয়াহাটির মধ্যে সংযোগকারী ব্রহ্মপুত্রের ওপর ৬ লেন বিশিষ্ট একটি সেতু। তিনি বারাউনি-গুয়াহাটি প্রাকৃতিক গ্যাস পাইপ লাইনে নুমালিগড়ে একটি জৈব পরিশোধনাগারের শিলান্যাস করবেন। তিনি চাংসারিতে একটি জনসভায় ভাষণ দেবেন।

আরও পড়ুনঃ সার্কিট বেঞ্চ উদ্বোধন করে দিয়ে মমতার ‘বাড়া ভাতে’ ছাই দিলেন মোদী

প্রধানমন্ত্রী ইটানগর ও আগরতলাও যাবেন। তিনি ইটানগরে একাধিক উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। হলঙ্গিতে তিনি গ্রীনফিল্ড বিমান বন্দরের শিলান্যাস করবেন। সেলা সুড়ঙ্গ পথ নির্মাণ প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করবেন তিনি। এটি নির্মিত হলে তাওয়াং উপত্যকা অঞ্চলের সঙ্গে সারা বছরেই যোগাযোগ বজায় থাকবে।

আরও পড়ুনঃ নতুন যুদ্ধ, রোজভ্যালি চিটফান্ড কাণ্ডে মমতার দুই অফিসারকে ডেকে পাঠাল ইডি

প্রধানমন্ত্রী ইটানগরের ইন্দিরা গান্ধী পার্কে অরুণাচল প্রদেশের জন্য ডিডি অরুণ প্রভা নামে দূরদর্শনের একটি নতুন চ্যানেল উদ্বোধন করবেন। এটি হবে দূর্দর্শনের ২৪তম চ্যানেল। তিনি রাজ্যে ভারতীয় চলচ্চিত্র ও টেলিভিশান প্রতিষ্ঠান এফটিটিআই এর একটি স্থায়ী ক্যাম্পাসের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করবেন। পুনে ও কলকাতার পর এটি হবে তৃতীয় এফটিটিআই।

আরও পড়ুনঃ কেন্দ্রে ক্ষমতায় এলে তিন তালাক বিরোধী আইন বাতিল করে দেবে কংগ্রেস

সফরের শেষ পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী আগরতলা যাবেন। তিনি এখানে স্বামী বিবেকানন্দ স্টেডিয়ামে একটি ফলকের আবরণ উন্মোচনের মাধ্যমে গারজি-বেলনিয়া রেল লাইন জাতির উদ্দেশ্যে সমর্পণ করবেন। এই রেল সংযোগ দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার প্রবেশদ্বার হিসেবে ত্রিপুরার ভূমিকা বৃদ্ধি করবে।

আরও পড়ুনঃ মমতার ধর্ণায় বসা পুলিশ অফিসারদের কড়া শাস্তি দিতে চলেছে মোদী সরকার

এর আগেও ভারতের মানচিত্রে থাকা বিভিন্ন জায়গার নামকরণ করে শোরগোল ফেলেছিল চিন। ভারত সীমান্তের এপারে দখল করার সেই স্বপ্নকে একেবারে মুখের উপর জবাব দিয়ে দিল ভারত। ভারতের বিদেশ মন্ত্রালয়ের তরফ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘কয়েকটা জায়গার নামকরণ করেই প্রতিবেশী দেশ যেন অবৈধ অধিকারকে বৈধ বলে দাবি না করে। অরুণাচল প্রদেশ ভারতের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ’।

আরও পড়ুনঃ মমতার বাংলায় ১ লাখ চাকরির প্রতিশ্রুতি দিলেন মুকেশ আম্বানি

দালাই লামার অরুণাচল প্রদেশ সফরের জবাবে যেভাবে সেখানকার ৬টি জায়গার নাম চীন বদলে দিয়েছিল, তাতেও তীব্র আপত্তি জানিয়েছিল নয়াদিল্লি। তিব্বতী ধর্মগুরুকে অরুণাচলে যাতে যাওয়ার অনুমতি না দেওয়া হয়, তার জন্যও চাপ সৃষ্টি করেছিল চিন। কিন্তু তাতে পাত্তা না দিয়ে দলাইকে দেওয়া অনুমতি বহাল রাখে কেন্দ্র।

আরও পড়ুনঃ সারদা রোজভ্যালি চিটফান্ড কাণ্ডে মমতার পুলিশ কর্তাদের বারবার তলব গোয়েন্দাদের

এরই পাল্টা জবাবে চিন ঘোষণা করেছিল, ‘তারা ভারতের উত্তরপূর্বের অরুণাচল প্রদেশের ৬টি জায়গার সরকারি নাম বদলে নতুন নাম দিয়েছে। তাদের দাবি ছিল, অরুণাচল যেহেতু তিব্বতের অংশ, তাই সেখানকার জায়গার নাম বদলের পদক্ষেপে কোনও অন্যায়ই নেই’।

আরও পড়ুনঃ রাজীব কুমার ও কুনাল ঘোষ দুজনকেই শিলংয়ে ডাকল সিবিআই

এবার প্রধানমন্ত্রী মোদীর সফরকে ঘিরেও চিন আপত্তি তোলায় উপযুক্ত জবাব দিল ভারত। ভারত যে প্রতিবেশীর এই আচরণ বরদাস্ত করতে তৈরি নয়, তা স্পষ্ট করে দিয়ে ভারতের বিদেশ মন্ত্রালয়ের মুখপাত্র জানান, “অরুণাচল প্রদেশ ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ। আপনার প্রতিবেশী দেশের জায়গার নাম বদলে বা সেখানকার নতুন নাম আবিষ্কার করলেই সেই জায়গা বেআইনি ভাবে দখল করে রাখাটা বৈধ হয়ে যায় না”।

আরও পড়ুনঃ বেকার যুবকদের মুখে হাসি ফুটিয়ে বাংলায় তৈরি হচ্ছে ১০ লক্ষ চাকরি

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র দফতর পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে, “অরুণাচলের প্রতিটি ইঞ্চি ভারতের। ভারতের নেতারা আগেও গেছেন অরুণাচল প্রদেশে, এখনও যাচ্ছেন, পরেও যাবেন, অন্য কোন দেশের তাতে কিছুই বলার নেই। এটা ভারতের আভ্যন্তরীণ ব্যপার”। চিনকে যোগ্য জবাব দিল ভারত, বলছে আন্তর্জাতিক মহল।

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন